২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, দুপুর ১২:০৮

সেন্ট্রালের ভূল চিকিৎসায় প্রাণ গেলো প্রসুতির

নারায়ণগঞ্জ শহরের সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ তুলেছে স্বজনরা। মরদেহ নিয়ে হাসপাতাল ঘেরাও ও ভাঙচুর করেছেন তারা। মৃত পান্না বেগমের বাড়ি শহরের ডনচেম্বার এলাকায়।

সোমবার ১৫ই মার্চ রাত ১১টার দিকে খানপুর এলাকার সেন্ট্রাল জেনারেল হাসপাতালে  এ ঘটনা ঘটে।

স্বজনরা জানান, সোমবার বেলা ১১টার দিকে পান্নাকে এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বেলা তিনটার দিকে অস্ত্রোপচারে মেয়েশিশুর জন্ম দেন তিনি। অস্ত্রোপচার করেন মিশকাত জাহান হেনা।

স্বজনদের অভিযোগ, পরে পান্নার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাকে একটি ইনজেকশন দেন। এরপর অবস্থা আরও খারাপ হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়। সেখানে নেয়া হলে চিকিৎসক পান্নাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পান্নার স্বজন ও এলাকাবাসী রাতে মরদেহ নিয়ে খাঁনপুর ফিরে সেন্ট্রাল জেনারেল হাসপাতাল ঘেরাও ও আসবাব ভাঙচুর করেন। তাদের অভিযোগ, চিকিৎসকের অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার জন্য তার মৃত্যু হয়েছে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

চিকিৎসক মিশকাত জাহান হেনা জানান, অস্ত্রোপচারের ১৫ মিনিট পর অবজারভেশন রুমে নিলে পান্না স্ট্রোক করেন। এ সময় তাকে একটি ইনজেকশন দেয়া হয়। এরপরও অবস্থার উন্নতি না হলে ঢাকায় পাঠানো হয়।

হাসপাতালের মালিক মনিরুজ্জামানের দাবি, রোগী মৃত্যুর দায় তার হাসপাতালের নয়। ঢাকায় নেয়ার পথে কোনো কারণে পান্নার মৃত্যু হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সিরাজুল ইসলাম জুয়েল জানান, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ