১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, বিকাল ৩:২২

সাবেক স্বামী নিয়ে বর্তমান স্বামীকে খুন, স্ত্রী সহ ২ জন রিমান্ডে

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী সহ ২ জনকে ৩দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালত এ আদেশ দেয়। রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন নিহত সুমনের স্ত্রী ডলি আক্তার ও আলামিন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান। তিনি জানান, মামলার তদন্তের স্বার্থে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত শুনানী শেষে ৩দিনের মঞ্জুর করেন।

গত ৫ সেপ্টেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জে বহুতল ভবনের ছাদে পাওয়া যায় সুমন নামের এক ব্যক্তির লাশ। আগের স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে স্ত্রী হত্যা করেছিল তার বর্তমান স্বামী সুমনকে। ৮ সেপ্টেম্বর এ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ নিহত সুমনের স্ত্রী ডলি আক্তারকে (৩৬) সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় থেকে গ্রেপ্তার কর। পরবর্তীতে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে চাঁদপুর জেলার মতলব থানা এলাকা থেকে মীর আব্দুস সালামের ছেলে মুজাহিদ মীর লিমন (১৮) ও সেকেন্দার আলী মজুমদারের ছেলে আলামিনকে (৪০) গ্রেপ্তার করে। তবে ডলির আগের স্বামী মীর আব্দুস সালাম পলাতক রয়েছেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা পরকীয়ার জের ধরেই এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে বলে স্বীকার করেছে। ডলি নিহত সুমনের স্ত্রী। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সুমনের অজ্ঞাতে আগের স্বামী আব্দুস সালামের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ডলিকে ডিভোর্স দিতে সুমনকে চাপ দেন আব্দুস সালাম।

সুমন তার স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে অস্বীকৃতি জানালে আব্দুস সালাম ও তার ছেলে মুজাহিদ মীর লিমন, আলামিন ও ডলি মিলে সুমনকে তারই সিদ্ধিরগঞ্জের কলসী বিল্ডিংয়ের ওই বাসার পাঁচতলায় খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় ট্যাবলেট সেবন করে হত্যাকান্ড ঘটায়। হত্যাকান্ডের পর তারা মরদেহ গুম করার পরিকল্পনা করেও ব্যর্থ হয়ে বাড়ির ছাদে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। নিহত সুমন মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার নতুন বাজার এলাকার সামছু শেখের ছেলে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ