আজ মঙ্গলবার, ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রূপগঞ্জে জমে উঠেছে নৌকার প্রচার

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

রূপগঞ্জে জমে উঠেছে নৌকার প্রচার-প্রচারণা। সারা রূপগঞ্জে মাঠে চুষে বেড়াচ্ছেন আওয়ামীলীগ সমর্থিত এমপি প্রার্থী বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তিনি প্রত্যেকটা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন। নৌকার ভোট চাচ্ছেন। গতকাল ২২ ডিসেম্বর রূপসী ,ভুলতা, গাউছিয়া এলাকায় গণসংযোগ করেন মন্ত্রী। অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য ভোটারদের নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তিনি। এসময় উপস্থিত ছিলেন কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম। সারা রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নৌকার মিছিলে মুখোরিত করে তুলেছেন। এর আগে তিনি ২০০৮,২০১৪,২০১৮ সালে একই আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তার নামে নেই কোন অনিয়ম দুনীর্তির অভিযোগ।
প্রচারণায় এসে প্রতিপক্ষদের উদ্দেশে গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, আমার বিপক্ষে তাদের দাঁড়ানোর কথা ছিলো না। তারা কোথাও থেকে অর্থ পেয়ে দাড়িয়েছে। তারা জানে তারা হারবে। নৌকা জিতবে। সারা রূপগঞ্জে নৌকার জোয়ার বইছে। আমি মানুষকে ঠকানোর রাজনীতি করি না। আমার উন্নয়ন দেখে আজ রূপগঞ্জের সাধারণ জনগণ নৌকার পক্ষে মাঠে নামছে। আমি সবার সাপোর্ট পাচ্ছি। সবাই উন্নয়ন দেখে ভোট দেবেন।
তিনি আরও বলেন, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক। কোন অপশক্তি নৌকাকে ঠেকাতে পারবে না।
এবার রূপগঞ্জে মোট ভোটার ৩ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬শ ১৬ জন। তার মধ্যে নারী ভোটার অর্ধেকের বেশি। নারায়ণগঞ্জ ১ আসনে নারী ভোটারদের সমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। রূপগঞ্জ উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজীর স্ত্রী হাছিনা গাজী। তিনি স্বামীর পক্ষে মাঠে রয়েছেন। রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা নতুন ভোটারদের নৌকার পক্ষে আকৃষ্ট করতে দিনরাত নৌকার পক্ষে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। মন্ত্রীপুত্র বলেন, কেউ নৌকার সাথে বেইমানী করবেন না। নেত্রী আমার বাবাকে নৌকা দিয়ে রূপগঞ্জে পাঠিয়েছেন। আমার নেত্রীর মান রাখার জন্য মাঠে আছি, আল্লাহ ছাড়া কেউ নৌকার বিজয় ঠেকাতে পারবে না।
এদিকে গাজীর বিপক্ষে এবার আবাসন কোম্পানী ও ভূমিদস্যুরা প্রার্থী দিয়েছে। শাহজাহান ভুঁইয়া ও তৈমূর আলম খন্দকার তাদের প্রার্থী বলে গুঞ্জন রয়েছে। কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রফিক বলেন, গাজী সাহেবকে বিজয়ী করতে আমি মাঠে নামছি। রূপগঞ্জে নৌকা হারবে না।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ