রত্নগর্ভা মায়ের স্বীকৃতি পেলেন শহীদ জননী হারিছা বেগম

105

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

শহীদ সামছুল আলমের মা হারিছা বেগমকে “রত্নগর্ভা মায়ের” স্বীকৃতি দিয়েছে রূপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন। গত ১৬ ডিসেম্বর শহীদ জননী হারিছা বেগমকে এ স্বীকৃতি দেয়া হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, এসিল্যান্ড তরিকুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়া। শুক্রবার ( ২৭ মার্চ) রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে ১ লাখ টাকা সম্মানী শহীদ জননী হারিছা বেগমকে দিয়েছি। শহীদ সামসুল আলমের কবর বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীকের নির্দেশে সংরক্ষণ ও পাকা করে দিয়েছি। তার বাড়ী সংরক্ষণ করা হবে। তিনিই প্রথম রূপগঞ্জে রত্নগর্ভা মায়ের স্বীকৃতি পেয়েছেন।

প্রসঙ্গত ,দাউদপুর ইউনিয়নের পূর্বাচলে শহীদ সামসুল আলমের বাড়ী। তিনি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে গিয়ে শহীদ হয়েছেন। তার মা ছেলা হারা বেদনা দিয়ে আজো বেচে আছে। গত ১৬ ডিসেম্বর  রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ এলাকায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ জননীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক  শহীদ সামসুল আলমের মা হারিছা বেগমের পা ছুঁয়ে সালাম করেছেন। এসময় অশ্রুসিক্ত কন্ঠে মন্ত্রী বলেন, “রক্ত দিয়ে কিনেছি মাগো তোমার বুকের মাটি, সোনা নয় সে, রূপা নয় সে, তার চেয়ে মা খাঁটি”।

For Advertisement:
01921400867
01981617415

সংবাদচর্চায় প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, ছবি, ভিডিও, তথ্য কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।