৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, রাত ৪:২৮

বাইতুস সালাত মসজিদ খুলে দেয়ার দাবী

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা বাইতুস সালাত জামে মসজিদ উন্মুক্ত করার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও সিআইডি কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। ২৭ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত আহত সহ মসজিদের মুতাওয়াল্লি মোহাম্মদ মাহমুদ সর্দার সহ ও করোনা ভাইরাসে নিহত ও আক্রান্তদের সুস্থতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই দাবী জানান। খানপুর সর্দারপাড়া রেললাইন যুব সমাজ ও আশার আলো জেমস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেনের এই মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, যদিও আইনগত বাধ্যবাধকা আছে। আমাদের দাবী থাকবে দয়া করে মসজিদে আবার নামাজের জন্য উন্মক্ত দেয়া হয়। কারণ এই মসজিদটি দীর্ঘদিনের পুরানো মসজিদ। দীর্ঘদিন এখানে নামাজ হয়ে আযান হয়েছে এখন আর নামাজ হয় না আযান শুনা যায় না এটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য। জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও সিআইডি কতৃপক্ষের কাছে অনুরোধ যেন দ্রুত মসজিদটি উন্মুক্ত দেয়া হয়। যাতে মসুল্লিরা নামাজ পড়তে পারে। আবার পাঁচ ওয়াক্ত যেন নামাজ হয়। তিনি আরও বলেন, আমাদের জন্য দোয়া করবেন। শেষ পর্যন্ত যেন পাশে থাকতে পারি। শুধু টাকা পয়সা দিয়ে পাশে থাকা না বিপদের সময় পাশে দাঁড়ানো সহানুভূতি জানানো পিঠে হাত রাখা এটাও অনেক বড় বিষয়। যদিও আমরা অর্থবিত্তে বলীয়ান না। যে কোনো বিপদে আপদে ডাকলে পাশে এসে দাঁড়াতে পারবো। দৌড়াদৌড়ি করতে হোক কোন জায়গায় তদবির করতে হোক করবো। বিস্ফোরণে যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন তাদের ছেলেমেয়েদের অনুরোধ করবো পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়ার জন্য। এক্ষেত্রে আমাদের সহযোগিতা উন্মুক্ত থাকবো। যারা মারা গেছেন তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করি। মোঃ ইছাল উদ্দিন মাহমুদের সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সামসু সর্দার, নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সহ সভাপতি রানা মজিব, ইউনুছ খান বিপ্লব, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মুসা মিয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মিঠু আহমেদ, শ্রমিক নেতা কাশেম, মোঃ আসাদ, মনির, মোঃ হোসেন, মোঃ ইমাম হোসেন, মিজানুর রহমান স্বপন, শাহ আলম, মানিক, মোবারক, মামুন হোসেন, শাহ আলম, মেহেদি হাসান বাপ্পী, রবিন, সিয়াম, শাকিব, সাইদুল, সাঈদ ও রবিউল সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। মিলাদ মাহফিল শেষে দোয়া মাহফিলে মসজিদ বিস্ফোরণে নিহত ও করোনা ভাইরাসে আক্তান্ত হয়ে নিতহদের রুহের মাগফেরাত কামনায় আহদের সুস্থতা কামনা সহ সুপ্রীম কোর্টের অ্যাপিলেট ডিভিশনের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সুস্থ্যতা কামনা ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ