২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, বিকাল ৩:২৯

বন্দরে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটার মামলায় ২ জন কারাগারে

কারাগারে গার্মেন্টস

সংবাদচর্চা অনলাইনঃ

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে দ্বিতীয় স্ত্রী শাহীনুর বেগম স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দেওয়ার মামলায় ২ জনের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আসামীরা হলেন, বন্দর উপজেলার হালুয়াপাড়া এলাকার মৃত. হযরত আলীর ছেলে আফজাল (৪০) ও আবু (৪৫)।

বৃহস্পতিবার ১৪ই জানুয়ারি সকালে মামলার দুই আসামি আদালতে আত্মসর্মপন করে। সে সময় আসামির পক্ষের আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করে। পরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহাম্মেদ হুমায়ূন কবির জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে ও আসামিদের কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

এর আগে, মঙ্গলবার ২৯ ডিসেম্বর রাতে বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের মালামত নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে রাতেই দ্বিতীয় স্ত্রী শাহীনুর বেগম পালিয়ে গেছেন। পরের দিন ভিকটিম ইব্রাহীমের ছেলে মো. ইসমাইল হোসেন (২৬) বাদী হয়ে সৎ মা শাহীনুর বেগমসহ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ২/৩ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

জামিন না মঞ্জুর ও কারাগারে প্রেরণের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশ এএসআই শারমিন আক্তার বলেন, আসামিরা আজ আদালতে আত্মসর্মপন করে করে জামিনের অঅবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত তা না মঞ্জুর করে আসামাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সাত বছর আগে বন্দরের মালামত এলাকার মৃত ওমর আলী বেপারীর ছেলে ইব্রাহীম প্রথম স্ত্রী হাসিনা বেগমকে রেখে চার সন্তানের জননী শাহীনুর বেগমকে দ্বিতীয় বিবাহ করেন। বিবাহের পর থেকেই সৎ মা উক্ত আসামিদের প্ররোচনায় বাদীর বাবার নামের সম্পত্তি তার শাহীনুর বেগমের নামে লিখে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করত। বাদীনির বাবা তাতে রাজি না হওয়ায় মঙ্গলবার রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে দুধের সাথে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে খাইয়ে অচেতন করে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ