Saturday , May 26 2018

ফতুল্লার বক্তাবলীতে সাংবাদিককে হত্যা করতে প্রকাশ্য অস্ত্র নিয়ে মহড়া

প্রকাশ্য অস্ত্র নিয়ে মহড়া

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সংবাদ মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ফতুল্লার বক্তাবলীতে সাংবাদিককে হত্যার উদ্দেশ্যে প্রকাশ্যে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে মহড়া দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা। শুধু মহড়ায়ই ক্ষান্ত হয়নি, সাংবাদিকের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক তান্ডব চালিয়েছে তারা। এসময় সাংবাদিক বাড়ির বাইরে থাকায় প্রানে বেঁচে যান। এনিয়ে অই সাংবাদিক ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ করলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেননা। সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়া দেয়ার পর থেকে বক্তাবলীর বিভিন্ন এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।
সাংবাদিক আবুল কালাম জানায়, স্থানীয় একটি অনলাইন পোর্টালে বক্তাবলীর ৫০ মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে একটি তথ্যবহুল সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই সংবাদের জের ধরে মধ্যনগর এলাকার মৃত সেকান্দরের পুত্র হালিম, মানিক কসাইয়ের পুত্র আমান, রফিকুলের পুত্র শান্ত, দিন মো: দেলুর পুত্র শাহাদাৎ স্বপন,মজিবুরের পুত্র রফিকুলসহ প্রায় অর্ধশতাধিক সন্ত্রাসী এই হামলায় অংশ নেয়। এসময় সন্ত্রাসী টেটা, বল্লম, রাম দা নিয়ে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে আঘাত করে এবং সাংবাদিক আবুল কালামকে আজাদকে হত্যার উদ্দেশ্যে খুঁজতে থাকে।
এই ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ ও তার পরিবার। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের হলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।
প্রসঙ্গত, গত সোমবার দুপুর ১টায় সন্ত্রাসীরা সংঘবদ্ধ হয়ে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। তবে সন্ত্রাসীদের হামলার সময় সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ বাড়িতে ছিল না। এই ঘটনার দিন ফতুল্লা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
জানা গেছে, সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়া ও হামলার ঘটনার ৪দিন অতিবাহিত হলেও কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করছে স্থানীয় সচেতন মহল।
এ ব্যাপারে জেলার পুলিশ সুপার ও ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার জরুরী হস্তক্ষেপ দাবি করেছে স্থানীয়রা।
অভিযোগে জানাযায়, স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের একাধিক পত্রিকায়া সংবাদ প্রকাশের জের ধরে সন্দেহ বশত মধ্যনগর এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও একাধিক মামলার আসামী হালিম আজাদ ও শাহাদাত স্বপনের নেতৃত্বে মাদক সন্ত্রাসীরা গত ১৪ মে সাংবাদিক কালামকে তার বাড়িতে এসে চড়াও হয়। প্রথমে স্থানীয়রা এর আপোশ করে দিলেও ঘটনার দিন দ্বিতীয় বারের ন্যায় দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রায় শতাধিক সন্ত্রাসী সাংবাদিক আবুল কালামকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার বাড়িতে হামলা চালায়। হামলার সময় সাংবাদিক আবুল কালাম বাড়িতে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যায়। এ ঘটনায় সাংবাদিক আবুল কালাম ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
এব্যাপারে বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী বলেন, যারা এলাকায় মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে লিপ্ত রয়েছে তারাই এলাকায় প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের হস্তক্ষেপ দাবি করছি।
ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ্ মঞ্জুর কাদের জানান, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পেয়েছে। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *