২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, সকাল ৭:২২
বিজ্ঞাপন

পয়সা নেয় সুরক্ষা দেয়না

নাদিম হাসান

শহরের সেন্ট্রাল খেয়া ঘাটে ট্রলারে পারা-পার হওয়া যাত্রীদের কাছথেকে টাকা উত্তলোন করলেও করোনা মোকাবেলায় তাদের কোন প্রকার সুরক্ষা ব্যবস্থা করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ফলে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এ ঘাট দিয়ে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে কয়েক হাজার মানুষ।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রতিদিন এ ঘাট দিয়ে নৌকা ও ট্রলারে করে পারা-পার হয় অনেক মানুষ। হরহামেশাই এক নৌকায় ত্রিশ থেকে ৩৫ জন ও ট্রলারে ষাট থেকে সত্তর জন করে যাত্রী পরা-পার হয় এ ঘাটে। ফলে যাতায়াতের সময় নিরাপদ দূরত্ব একেবারেই থাকে না। নৌকা ঘাটে ভাড়া না থাকলেও ট্রলারে জন প্রতি দুই টাকা করে টোল ফি দিতে হয় । ট্রলার পল্টনে ভেরার সাথে সাথেই মানুষ টাকা দিতে ভিড় করে টোল টেবিলের সামনে।

তখন এক জনের সাথে অন্য জন গাঁ ঘেঁসে দড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। ঘাট কর্তৃপক্ষ এ ঘাট থেকে একদিনে লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিলেও যত্রীদের জন্য এখন পর্যন্ত কোন সুরক্ষা ব্যবস্থা করেনি। করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ঘাটের সামনে জীবাণু নাশক টানেল ও হাত ধোঁয়ার ব্যবস্থা না থাকায় ঝুঁকি নিয়েই আসা যাওয়া করতে হচ্ছে যাত্রীদের।

এ প্রসঙ্গে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির নেতা জানিয়েছেন, প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা নিচ্ছে ঘাটের টাকা উত্তোলনকারী কিন্তু কিছু টাকা খরচ করে মানুষ সুরক্ষা দেয়না। তারা ব্যবসা করে সেবা দেয় না। পয়সা নেয় সুরক্ষা দেয় না। এই ঘাটে প্রশাসন নজরদারি করলে ঘাট কর্তৃপক্ষ নিয়ম মানতে বাধ্য হবে। প্রশানের এই বিষয় কঠোর হওয়া প্রয়োজন বলে জানান তারা।