১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ভোর ৫:১৮

পশুর হাটে শর্ত না মানলে ব্যবস্থাঃ না.গঞ্জ ডিসি

সংবাদচর্চা অনলাইনঃ

দরদাম, যুক্তিতর্ক করে কোরবানীর পশু ক্রয়ে রয়েছে আলাদা আনন্দ। তবে করোনাকালে আনন্দের পরবর্তীতে মানতে হবে শর্ত, থাকতে হবে সর্তক। যদি শর্ত মানতে কেউ নারাজ হয়, তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন।

তিনি তার ফেসবুক স্টাটাসে একটি পোষ্ট করেছেন। যেখানে বলা হয়েছে, সকলকে আবশ্যিকভাবে মাস্ক, গ্লাভস ও অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহার করতে হবে। ঘন ঘন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। পশুর হাটের প্রবেশ পথ ও বহিমিন পথ সহ একাধিক পয়েন্টে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। পশুর হাটে ক্রেতা বিক্রেতা সহ আগত সকলকেই নূনতম তিন ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা বাধ্যতামূলক। পশুর হাটের জন্য নির্ধারিত স্থানে জীবানুমুক্ত খাবার পানির ব্যবস্থা ছাড়া অন্য কোন প্রকার ভ্রাম্যমান খাবারের দোকান, ফেরীওয়ালা বসতে পারবে না।

পশুর হাটে অসুস্থ ব্যাক্তি, ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের আসা নিৎসাহিত করা হবে। যেখানে সেখানে ময়লা ফেলা যাবে না। নির্দিষ্ট দূরত্ব পর পর অস্থায়ী ডাস্টবিন স্থাপন করতে হবে। ব্যবহৃত মাস্ক ও গ্লাভস সহ ঝুঁকিপূর্ণ বর্জ্য অপসারণের পৃথক ব্যবস্থা থাকতে হবে। পশুর হাট চলাকালীন প্রতিদিন সকাল ৭ টার মধ্যে হাট প্রাঙ্গন অবশ্যই পরিষ্কার করতে হবে। হাটের প্রবেশ পথ ও বহির্গমন পথে জীবানুনাশক টানেল ও থামাল ক্ষ্যানার ব্যবস্থা রাখতে হরে। করোনা প্রতিরোধে হাট প্রাঙ্গনে সার্বক্ষনিক সচেতনতামূলক মাইকিয়ের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

দৃশ্যমান একাধিক স্থানে ছবিসহ সরকারি স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশনা ঝুলিয়ে রাখতে হবে। হাট প্রাঙ্গনে স্থাপিত স্থায়ী ও অস্থায়ী টয়লেট সমূহ ঘন ঘন পরিষ্কার করতে হবে। হাটে স্থাপিত জাল টাকা সনান্তকরণ বুথ, মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট বুথ, পশু স্বাস্থ্য নিরীক্ষা বুথ ইত্যাদি সকল বুথে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। গবাদি পশু বহনসহ সকল যানবাহন হাট প্রাঙ্গনে প্রবেশকালে অবশ্যই জীবানুমুক্ত করতে হবে। গবাদি পর রাখার স্থানগুলোকে নিদিষ্ট দূরত্ব পরপর একাধিক ব্লকে বিভক্ত করতে হবে যেন পর্যাপ্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে।

স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠন করে তালিকা জেলা প্রশাসক বরাবর পাঠাতে হবে। মেডিকেল টিম ও প্রানি সম্পদ চিকিৎসকের জন্য আবশ্যিকভাবে সেবা বুথ থাকতে হবে। সড়ক ও মহাসড়কের উপর কোন হাট বসানো যাবে না। মহাসড়কের ১০ মিটারের মধ্যে হাট বসানো যাবে না, যানজট সৃষ্টি করা যাবে না। জনজীবনে কোন ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করা যাবে না।

এ বিষয়ে কেউ অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ