১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, সকাল ৬:৪১

“নারায়ণগঞ্জ ফ্রেমিং” ও “নারায়ণগঞ্জ ব্র্যান্ড সং” সৃষ্টিকর্মসমূহের উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থায় জেলা প্রশাসন একটি প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান। জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা- কর্মচারীগণ তাদের উপর অর্পিত রুটিন কার্যাবলী সম্পাদনের পাশাপাশি বহুমুখী কর্মকান্ড সম্পাদন করে থাকেন। যার মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য থাকে জনগণের সার্বিক জীবনমানের উন্নয়ন, অর্থনৈতিক কর্মকান্ডের গতি তরান্বিত করা, সুশাসন- সামাজিক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা। সর্বোপরি জেলার ইতিহাস ঐতিহ্যকে সারা দেশ তথা বিশ্ব দরবারে ইতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা। প্রতিটি জেলার বর্তমান অগ্রগতির পেছনে সময়ে সময়ে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণের ধারাবাহিক উদ্যোগ ও শ্রমের ফসল।

নারায়ণগঞ্জ জেলার বর্তমান জেলা প্রশাসক জনাব মোস্তাইন বিল্লাহ এ জেলায় যোগদানের পর মোট ২৪ টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তন্মধ্যে মাত্র ০৬ মাসের ব্যবধানে ০৭ টি উদ্যোগ বাস্তবায়িত হয়েছে। এই উদ্যোগগুলোর মধ্যে অন্যতম দুটি উদ্যোগ হলো- “নারায়ণগঞ্জ ফ্রেমিং- একটি ট্যুরিস্ট ফটো এলবাম” ও “নারায়ণগঞ্জ ব্র্যান্ড সং”।

ট্যুরিস্ট ফটো এলবামঃ একটি জেলার পর্যটন শিল্পের বিকাশের জন্য জেলার আওতাধীন ট্যুরিস্ট স্পটগুলোর বর্ণনাসহ একটি সচিত্র প্রকাশনা থাকলে জেলার ইকো- ট্যুরিজম বিকাশের সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে। এক্ষেত্রে এই এলবামটি দেশ বিদেশের মানুষের কাছে জেলার ট্যুরিস্ট গাইড হিসেবে যা ইকো- ট্যুরিজমকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করবে। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে “নারায়ণগঞ্জ ফ্রেমিং” এলবামটি প্রকাশ করা হয়েছে। এতে স্থান পেয়েছে সোনারগাঁও, পানাম নগরী, হাজীগঞ্জ দুর্গ, জামদানি পল্লী, আদমজী, কদম রসুল দরগাহ, লাংগলবন্দ ইত্যাদি পর্যটন স্থানের বর্ণনা ছবিসহ। দেশি বিদেশি পর্যটকদের জন্য পর্যটন কেন্দ্রসমূহের বর্ণনা বাংলা এবং ইংরেজি দুটি ভাষাতেই সংকলিত হয়েছে। এই একটি ফটো এলবামের মাধ্যমে একজন পর্যটক পুরো নারায়ণগঞ্জের ট্যুরিজম সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করতে পারবে। জেলা প্রশাসক জনাব মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, “এই ট্যুরিস্ট এলবামের কপিটি বাংলাদেশের সকল জেলা, উপজেলা, সকল মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশে কর্মরত সকল মিশনসমূহে এবং বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশী মিশনসমূহে, দেশের এয়ারপোর্ট, ফাইভস্টার হোটেল ও রিসোর্টসমূহে প্রেরণ করা হবে। এটি নারায়ণগঞ্জ জেলার ট্যুরিজম শিল্পের বিকাশ গেম চেঞ্জার হিসেবে কাজ করবে।” জেলা প্রশাসক অতি অল্পসময়ে এই প্রকাশনার জন্য টিম নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি সদস্যকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান।

নারায়ণগঞ্জ ব্র্যান্ড সং: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন ৪১ ঘোষণা করেছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে উন্নত রাষ্ট্র এই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসন নারায়ণগঞ্জ। প্রাচীনকাল থেকে এই ভূখন্ডে সঙ্গীতের চর্চা হয়ে আসছে। সঙ্গীত একমাত্র মাধ্যম যার মধ্যে যেকোনো অঞ্চলের বার্তা মানুষের মনের গভীরে পৌঁছে দেয়া সম্ভব। নারায়ণগঞ্জ জেলার ব্যবসা- বাণিজ্য, ইতিহাস- ঐতিহ্যকে দ্রুত সময়ের মধ্যে কোটি মানুষের হৃদয়ে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে “নারায়ণগঞ্জ ব্র্যান্ড সং” নামে একটি জেলার পরিচিতিমূলক গান রচনা, সুরকরণ ও চিত্রায়ণ করা হয়েছে। গানটি নারায়ণগঞ্জ জেলা ব্র্যান্ডিংয়ে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে বলে মত প্রকাশ করেন জেলা প্রশাসক জনাব মোস্তাইন বিল্লাহ। গানের বিষয়বস্তু, স্থান, কাল, রচয়িতা, শিল্প কলা-কুশলী সকলেই নারায়ণগঞ্জের। অর্থাৎ, এটি এককথায় নারায়ণগঞ্জের একটি মৌলিক সৃষ্টি। জেলা প্রশাসনের একান্ত উদ্যোগে এটি প্রকাশিত হয়েছে। এ গানটি রচনা, সুরকরণ, চিত্রায়ণসহ প্রতিটি পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট, শিল্পী-কলাকুশলীবৃন্দ সহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন জেলা প্রশাসক।

মঙ্গলবার ১৩ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে এই সৃষ্টিকর্মসমূহের শুভ উদ্বোধন করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ খলিলুর রহমান, অতিরিক্ত সচিব (এপিডি অনুবিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়) মোঃ আনিছুর রহমান মিঞা , এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক
মোস্তাইন বিল্লাহ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ