৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, দুপুর ১:১৬

দলীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় বিএনপি

সংবাদচর্চা রিপোর্ট: রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার । মনোনয়ন পত্র বাছাই ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার । প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৩ অক্টোবর শনিবার। প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ ৪ অক্টোবর। ভোট গ্রহণ ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার।

তফসিল ঘোষণার পর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা লবিং শুরু করে দিয়েছেন। হাটে- ঘাটে,অফিসে চায়ের দোকানে শুরু হয়েছে নির্বাচনী আলোচনা।

রূপগঞ্জ থানা বিএনপির একটি সুত্রে জানা গেছে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে এখন পর্যন্ত বিএনপির সিদ্ধান্ত হয়নি। তৃণমূল বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছে রূপগঞ্জ থানা বিএনপি।

সুত্রটি আরো জানান ,দলীয় প্রতীক ধানের শীর্ষ দিলে দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে।

বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা হলেন,রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শরিফ আহমেদ টুটুল,রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. হেলাল উদ্দিন সরকার, রূপগঞ্জ উপজেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম। তবে সাবেক চেয়ারম্যান শরিফ আহমেদ টুটুল একটু কৌশলে এগিয়ে যাচ্ছেন। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন বলে জানা গেছে। ক্ষমতাসীন এবং বিরোধী দলের ভোট পেতে তার এই চেষ্টা ।

মঙ্গলবার ( ১৫ সেপ্টেম্বর) নির্বাচনে বিএনপির অংশ গ্রহনের ব্যাপারে রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড.মাহফুজুর রহমান হুমায়ুন কাছে জানতে চাইলে তিনি সংবাদচর্চাকে বলেন, কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি। দলীয় প্রতীক দিলে আমরা অবশ্যই নির্বাচনে অংশ নেব। আমাদের তিনজন প্রার্থী মাঠে রয়েছে। কেন্দ্রীয় কমিটির সাথে আলোচনা করে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে।

সম্প্রতি সংবাদচর্চাকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এড. হেলাল উদ্দিন সরকার বলেন, আমি গত দশবছর যাবত মাঠে রয়েছি। সপ্তাহে ২ দিন গণসংযোগ করেছিলাম। আমি বিএনপির একক প্রার্থী।
তিনি আরো বলেন, আমার সাথে জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান রূপগঞ্জ থানা বিএনপির সেক্রেটারি হুমায়ুন সহ সকল নেতৃবৃন্দ রয়েছে। এমনকি শাসক দলের অনেকের সাথে আমার সু সম্পর্ক রয়েছে। নির্বাচনে ভয়ের কোনো কারণ নেই।

প্রসঙ্গত দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদে সর্বশেষ নির্বাচন হয়েছে ২০১৪ সালে। সেই নির্বাচনে নুরুল ইসলাম বিজয়ী হয়। এর আগে চেয়ারম্যান ছিলেন শরিফ আহমেদ টুটুল। তিনি ২০০৪ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছেন। দাউদপুরে প্রায় ৩৩ হাজার ভোটার রয়েছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ