১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ভোর ৫:১০

দগ্ধ সালমা তালিকায় নেই !

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

মসজিদে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় বার্ন ইউনিটে ৩৭ জন ভর্তি করা হয়েছিল, এর মধ্যে ২৮জন মারা গেছেন। একজন বাসায় ফিরেছেন সুস্থ হয়ে। ৮জন চিকিৎসা নিচ্ছেন আইসিইউ’তে। তবে আরও একজন মসজিদের বাইরে থেকেই দগ্ধ হয়েছিলেন, তার নাম নেই সেই তালিকায়।

৪ সেপ্টেম্বর সেই ভয়াবহ বিষ্ফোরণের অগ্নিপিন্ড জানালা ভেদ করে আসে মসজিদের উত্তর পাশের গলিতে। সেখানেই দগ্ধ হয় সালমা নামের এক গৃহিণী। দগ্ধদের সরকারি তালিকায় নাম নেই সেই সালমার। দুই মেয়ে ও স্বামীকে নিয়ে তল্লায় ভাড়া বাসায় থাকেন তিনি।

সালমা বলেন, শুক্রবার রাতে ঔষুধ আনতে বের হয়েছিলাম। মসজিদের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় বিষ্ফোরন হয়। বিষ্ফোরনের ধাক্কা আমি সামাল দিতে না পেরে পরে যাই। আমারে হাত পায়ে খুব ব্যথ্যা হচ্ছিলো। আমি পাশের এক বাসায় যাই। কারেন্ট ছিলোনা বলে বুঝতে পারিনি কি হয়েছে। পাশের বাসার আমার পরিচিত এক মহিলা পায়ে পানি ডেলে দেয়। আমি বাসায় আসার পর বুঝতে পারি আগুনে আমার শরীলের অংশ দগ্ধ হয়েছে। রাতে ব্যথ্যা আরো বেড়ে যায় আমাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ইনজেকশন আর মলম দেয়।

তালিকাভুক্ত দগ্ধদের সরকারি সাহায্য দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। কিন্তু ৩৭ জনের তালিকায় সালমার নাম না থাকায় সাহায্য পাওয়ার সম্ভাবনা প্রশ্নবিদ্ধ। তাই সরকারি সাহায্য চেয়ে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।”

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ