আজ শুক্রবার, ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোনারগাঁয়ে তিনভাইকে কুপিয়ে জখম

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর ইউনিয়নের পূর্ব বেহাকৈর কালিয়া ভিটা গ্রামে তুচ্ছ ঘটনায় তিন ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা যায়। এ ঘটনায় আহতদের বড় ভাই রোস্তম আলী বাদি হয়ে বিকেলে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের পূর্ব বেহাকৈর কালিয়া ভিটা গ্রামের ফেদু মিয়ার ছেলে আজিজুল ইসলামের জামদানি কারখানায় সুমন নামের এক করিগর দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে।

১২ বছর বয়সী সুমন তার কাজে ভুল করার কারনে মঙ্গলবার সকালে আজিজুল ইসলাম তাকে চর থাপ্পর মারে। চর থাপ্পরের ঘটনায় সুমন আজিজুল ইসলামের প্রতিবেশী এনামুল হকের ছেলে সামিরের কাছে বিচার দাবী করে সুমন।

এ ঘটনায় আজিজুল ইসলামকে সমির সহ তার সহযোগী মোবারক হোসেনের ছেলে শাহিন, আলিমউল্লাহর ছেলে আকিব, জমির আলীর ছেলে কাজল এসে সুমনকে মারধরে বিষয়টি জানতে চায়। এনিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে সামিরের নেতৃত্বে শাহিন, আকিব ও কাজল দেশীয় অস্ত্র রামদা, লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে আজিজুলের বাড়িতে এসে হামলা চালায়। হামলায় আজিজুল ইসলাম, সাত্তার মিয়া ও ইউসুফ আহত হয়।

আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের মধ্যে সাত্তার মিয়ার অবস্থা আশংঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন তার স্বজনরা।

আহত আজিজুল ইসলামের ভাতিজা আব্দুল গাফফার আপন জানান, দীর্ঘদিন ধরে আমার চাচা আজিজুল ইসলামের সাথে পাশ^বর্তী সমির আলীর বড় ভাইয়ের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। এ বিরোধের ক্ষিপ্ত হয়ে কারিগর সুমনের বিচার সালিশকে কাজে লাগিয়ে সকালে পরিকল্পিভাবে হামলা করে। হামলায় আমার তিন চাচা আহত হন। আহত আব্দুস সাত্তারের অবস্থা আশংকাজনক।

অভিযুক্ত সমিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অল্প বয়সী কারিগর সুমনকে আজিজুল বিনা কারনে বিভিন্ন সময়ে মারধরে করে থাকে। গতকালও আজিজুল তাকে অমানবিকভাবে মারধরে করায় আমরা গিয়ে তার কাছে জানতে চাইলে আমাদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, তিনভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ