১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ভোর ৫:৪২

ডিক্রিরচর খেয়াঘাট বেড়েছে পানি সঙ্গে ভোগান্তি

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

মূল সড়ক থেকে ২শ ফুট দুরে ডিক্রিরচর খেয়াঘাটে ট্রলার যাত্রী উঠানামার জেটি। বর্ষার মৌসুমে পানি বাড়তে থাকায় ডুবেছে সড়কের একাশং ও জেটি। ফলে হাটু পানি মাড়িয়ে ভোগান্তি নিয়েই ট্রলারে উঠতে হচ্ছে যাত্রীদের। তবে, বাশ-কাঠ দিয়ে নতুন করে আলাদা জায়গা জেটি নির্মানের কাজ শুরু করেছে ঘাট কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিনে ডিক্রিরচর ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, নদীতে পানি বেড়ে গেছে। পানিতে তলিয়ে গেছে নদীর ঘাটের কিছু অংশও। এ ঘাট হয়ে নিয়মিত যাতায়াত করা যাত্রী আব্দুল মালেক জানান, গতকাল পানি অনেক কম ছিল। আজ অনেকটা বেড়েছে। তবে মাঝিরা চেষ্টা করছেন সাবধানে পারাপার করতে।

এ বিষয়ে ঘাট কর্তৃপক্ষ জানান, প্রাকৃতিক ভাবে পানি বেড়েছে। নতুন জেটি বাঁধার কাজ চলছে। আগামীকাল থেকে আশা করি কিছুটা সমস্যার সমাধান হবে।

জানা যায়, দ্বিতীয় দফায় আবারও বন্যা ঝুঁকিতে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ। জেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত শীতলক্ষ্যা ও ধলেশ্বরী নদীর পানি বিপৎসীমার কাছে চলে এসেছে। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র থেকে বলা হয়, নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে পানির বিপদসীমা ৫.৮৪ মিটার প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে গত ১ জুলাই সমতল ছিল ৪.৭৫, ২ জুলাই পানি বেড়ে ৪.৯০ মিটারে দাঁড়িয়েছে। ৩ জুলাই ০.১০ মিটার বেড়ে পানির সমতল হয় ৫.০০ মিটার।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ