১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, বিকাল ৩:৫৫

জেলা পরিষদের শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশে ষড়যন্ত্র করা হয়েছিলো। জয়বাংলার শ্লোগান বদলে পাকিস্থানের শ্লোগানের আদলে বাংলাদেশ জিন্দাবাদ শ্লোগানে রূপান্তরিত করতে চেয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। একজন মানুষকে হত্যার পর সেই হত্যাকারীর বিচার করা যাবে না এমন আইনও পাশ করতে চেয়েছিলেন জিয়া। বাংলার স্বাধীনতা বিরুধীদের বঙ্গবন্ধুর হত্যার পর দেশের গুরুত্বপূর্ন পদে বসিয়েছেন। তখন আমরা অনেক আন্দোলন করেছি শুধু একটাই কামনা করতাম, বঙ্গবন্ধুর রক্তের কেউ এসে দেশের হাল ধরুক।

সোমবার দুপুরে জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, ৭৫’র এ বঙ্গবন্ধুকে হত্যা না করা হলে দেশ এতোদিনে ইউরোপের মতো উন্নত থাকতো। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর তার র্দীঘ দিন আমরা বাড়িতে থাকতে পারিনি। ৯৬ প্রথম বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরলো, তখন থেকেই তিনি তার বাবার স্বপ্ন পূরনে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তারপরও ষড়যন্ত্রকারীরা পিছু হাটেনি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও বেশ কয়েকবার হত্যার চেষ্ঠা করা হয়েছে।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন, সদস্য মজিবর রহমান, মাহমুদা মালা, পরিষদের কর্মকর্তা (প্রশাসন) রাশেদুজ্জামান, ইঞ্জিনিয়ার অলি উল্লাহ প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে ১৫ আগস্ট নিহত সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও জাতীয় পার্টী নেতা আবুল জাহের আত্মার মাগফেরাত কামনা দোয়া পরিচালনা করা হয়।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ