৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, সন্ধ্যা ৭:২৫

জিসা জীবিত ফিরে আসায় ওসি ও তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগ এলাকার স্কুল ছাত্রী মৃত জিসা মনি জীবিত ফিরে আসায় অপহরণ মামলার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান ও মামলার বর্তমান তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি) অপারেশন আব্দুল হাইকে আদালতে তলব করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামি আব্দুল্লাহর আইনজীবী এড. রোকন উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আগামী ৩১ আগস্ট স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে ‘জীবিত জিসা কি ভাবে মৃত হলো, মৃত থেকে আবার কি ভাবে জীবিত ফিরে এলো, এবং কেন ১৬৪ করা হলো। কেন ওই মামলা এখনও নথি ভুক্ত করা হয় নাই। এ বিষয় গুলোতে আদালতে ব্যখ্যা দেয়ার জন্য তাদের আদালতে থলব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১২টায় নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাওসার আলমের আদালতে এ নির্দেশ প্রদান করেন। একই সাথে গ্রেপ্তার চার আসামির জামিন আবেদন চাওয়া হয়। এড. রোকন উদ্দিন বলেন, আদালত শুনানি শেষে এই মামলার আরেক আসামি জিসার স্বামী ইকবালের রিমান্ড শুনানি ও বাকি আসামিদের জামিন শুনানি ৩১ আগষ্টের দিন হবে বলে আদেশ দেন।

গত ৪ জুলাই ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী শহরের দেওভোগের বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। তাকে না পেয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় জিডি ও মামলা করে তার পরিবার। ওই মামলায় পুলিশ আব্দুল্লাহ, রকিব ও নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৯ অগাস্ট তারা আদালতে জবানবন্দি দেন। সেখানে তারা ‘অপহরণ, ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার’ দায় স্বীকার করেন। ওই মামলার তদন্তকর্মকর্তা ছিলেন এসআই শামীম আল মামুন।

এদিকে ঘটনার ৫১ দিন পর ২৩ অগাস্ট ওই কিশোরী মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তাকে এনে পুলিশ সোর্পদ করে পরিবারের লোকজন। আদালতের নির্দেশে মেয়েটি এখন পরিবারের জিম্মাতেই আছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ