আজ বুধবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কাশিপুরে জোড়া খুনের রহস্য উন্মোচন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার কাশিপুর এলাকার জোড়া খুনের রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেন (পিবিআই)। মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ ও চাদাঁবাজির টাকার ভাগভাটোয়ারা নিয়ে তুহিন হাওলাদার মিল্টন ও পারভেজকে হত্যা করা হয়। হত্যার পাঁচ বছর পর এই মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে তারা।

মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় পিবিআইয়ের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য তুলে ধরেন এসপি মনিরুল ইসলাম।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন বাপ্পি সিকদার ও আমান ভুইয়া। তাদেরকে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা ঘাড়মোড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।
এরই মধ্যে গ্রেফতারকৃত আমান ভুইয়া হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেছেন। জবানবন্দিতে তিনি বলেন, ২০১৭ সালের ১২ অক্টোবর রাত নয়টায় কাশিপুর হোসাইনি নগর এলাকায় মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ, চাদাঁবাজির টাকার ভাগভাটোয়ারা এবং আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরে তাদের নেতৃত্বে ২০-২২ জনের একটি দল এলোপাথাড়ি কুপিয়ে তুহিন হাওলাদার মিল্টন ও পারভেজকে হত্যা করা হয়।

পরে লাশ বিকৃত করার জন্য গ্যারেজে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই পলাতক ছিলো আসামি বাপ্পি সিকদার ও আমান ভুইয়া।

এ ঘটনায় ভিকটিমের পরিবার ভয়ে মামলা না করলে পুলিশ বাদি হয়ে ২২ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করে।

মামলাটি পিবিআইয়ের কাছে এলে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই শাকিল তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় চলতি মাসের ১২ জানুয়ারি বন্দরের ঘাড়মোড়া এলাকা থেকে বাপ্পি সিকদারকে এবং ১৬ জানুয়ারি আমান ভুইয়াকে গ্রেফতার করে।

পরে আমান ভুইয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুনাহারের আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ