১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, রাত ৪:৫৮

কাকে ময়লা নেই

রণজিৎ মোদক :

কারও দ্বারা ধোকাবাজির শিকার হলে কিংবা ধোকাবাজি বুঝতে পারলে অনেকেই বলেন, ‘এই মিয়া! আমার সাথে পলিটিক্স করতে এসেছো ? পলিটিক্সের বাংলা অর্থ রাজনীতি। যা মানুষের কল্যাণে করে প্রকৃত রাজনীতিকরা। তবে নামধারী রাজনৈতিক নেতাদের কারণে রাজনীতির মত পবিত্র শব্দটি দিন দিন কলুষিত হয়ে উঠছে।

একটা কথা প্রায়ই নেতাদের মুখে শোনা যেত ‘ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ বড়। যদিও বাস্তবে ঘটে তার উল্টোটা। ব্যক্তি কেন্দ্রিক রাজনীতিই সমাজে জগদ্দল পাথরের মতো চেপে বসেছে। নেতার বন্দনা না করলে পদ পাওয়া যায় না, ভাগ্যে জুটে না বাণিজ্যের ফিকির।

রাষ্ট্র বিজ্ঞান মতে, রাজনীতি মানে নীতির রাজ। অর্থাৎ আমজনতার কিংবা অন্যসব ক্ষেত্রে মানুষের নীতি থাকবে তবে রাজনীতিকদের নীতি হবে সর্বোচ্চ। এখানে কোন খাদ থাকতে পারবে না। অতীতে তা মেনেই রাজনীতি করেছেন নেতারা। তারা মানুষের হৃদয়ে আজও আছেন। তাদের নামের প্রতি শ্রদ্ধা-ভক্তির কোন কমতি নেই।

কিন্তু বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের দিকে তাকালে হাতেগোনা গুটি কয়েকজনের নাম খুঁজে পাওয়া যাবে। মুক্তা সমৃদ্ধ ঝিনুক যেমন গভীর জলের অতলে লুকিয়ে থাকে। ঠিক তেমন আজকের সমাজে অনেক সৎ নিষ্ঠাবান দেশপ্রেমিক ব্যক্তি সমাজে লুকিয়ে রয়েছেন। তারা ‘হামকে বড় কোন হে’ নেতার দলে আত্মপ্রকাশ করছেন না। অপরদিকে কচুরীপানার ন্যায় অনেক নেতার নাম এখন গ্রামে-গঞ্জে ছেঁয়ে গেছে। বড় বড় নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে পাতি নেতারা বিভিন্ন ক্ষেত্রে চাঁদাবাজির মহোৎসবে মেতে উঠেছে।

বিগত ১০ বছর পেরিয়ে চলমান সরকার। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আজ প্রধানমন্ত্রী, তাঁর চাওয়া-পাওয়ার কিছুই নেই। কিন্তু আমরা সাধারণ মানুষ চোখের দৃষ্টিতে যা দেখছি তাতে রাজনীতির মধ্যে আজ কাকের সংখ্যা বেশী দেখছি। আধুনিক সমাজে শ্রমিক এবং মালিকদের মধ্যে সর্বদাই ভীষণ সংঘর্ষ হচ্ছে। এই সংঘর্ষ একটি আন্তর্জাতিক রূপ ধারণ করেছে এবং তার ফলে সমস্ত পৃথিবী বিপদগ্রস্থ হয়ে পড়ছে। নামধারী শ্রমিক নেতাদের কারণেই অসহায় শ্রমিকরা চাকরি হারিয়ে রাজনীতির বলি হচ্ছে।

প্রকৃতি জগতে কাক পাখি আমাদের বন্ধু, পরিবেশ সুন্দর করায় তৎপর। ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করছে। ডাস্টবিনে বসে ময়লা আবর্জনা খাচ্ছে, কিন্তু কাকের শরীরে ময়লা থাকছে না। কিন্তু রাজনৈতিক আকাশের কাকগুলো ময়লা খাচ্ছে এবং সমাজে ময়লা ছড়াচ্ছে। আজ এ কথাগুলো বলতে কষ্ট হচ্ছে। কারণ এক সময় রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা সমাজের সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতো। সাধারণ মানুষ তাদের শ্রদ্ধা করতেন। আজ মানুষের শ্রদ্ধা ভক্তি কমে যাচ্ছে। কমে যাওয়ার কারণগুলো আর ব্যাখ্যা করতে চাই না।

(লেখক: শিক্ষক, সাংবাদিক ও কলামিষ্ট ও সভাপতি, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমবায় সমিতি লি.)

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ