৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, সন্ধ্যা ৭:৩৩

কলা বিক্রেতা সেজে হত্যা মামলার আসামি ধরল পুলিশ

আড়াইহাজারে কলা বিক্রেতা সেজে গোলজার হোসেন (৩৩ ) নামের এক হত্যা মামলার আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে ঢাকার ক্যান্টেনম্যান্ট থানার মাটি কাটা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত গোলজার উপজেলার ব্রাক্ষন্দী ইউনিয়নের মারুয়াদী গ্রামের অহিদ মিয়ার ছেলে এবং নিহত রোকসানা আক্তার রুনা উপজেলার কল্যান্দী গ্রামের মৃত কালু মিয়ার মেয়ে।

আড়াইহাজার থানার উপরিদর্শক (এস আই) আশাদুর রহমান জানান, ১৬ ডিসেম্বর উপজেলার মারুয়াদী গ্রামের গোলজার তার স্ত্রী উপজেলার ছোট বিনাইরচর গ্রামের জুলহাসের ভাড়াটিয়া বাড়ীতে রুনা আক্তার (২৭) কে গলায় ওরনা পেচিয়ে শ্বাসরোধ হত্যা করে । হত্যার পর বাড়াটিয়া বাড়ি থেকে রুনার লাশ বাপের বাড়ি কল্যান্দী নেওয়ার সময় লাশ গাড়িতে উঠিয়ে দিয়ে স্বামী গোলজার পালিয়ে যায়। পরে রুনা আত্মহত্যা করছে বলে অপপ্রচার করে লাশ দাফনের প্রস্তুুতি নিতে থাকে। এরই মাঝে থানা পুলিশ গোপনে খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করার জন্য নারায়নগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেন। ময়না তদন্ত শেষে ১০ ফেব্রুয়ারি পুলিশ রিপোর্টে পায় যে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। রির্পোটটি পাওয়ার পর পুলিশ আসামী গ্রেফতারের চেস্টা চালান। এর আগে ১৭ ডিসেম্বর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছিল। রির্পোট পাওয়ার ২ মাস পর  শনিবার থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু হয়।

এদিকে গোলজারের মোবাইল ও ফেইসবুক ট্যাকিং করে পুলিশ জানতে পারে সে ঢাকা ক্যান্টেনম্যান্ট মাটি কাটা এলাকায় বসবাস করে কলা বিক্রি করছে। তাকে গ্রেফতার করতে এস,আই আসাদুর রহমান এবং এস,আই শামীম ও কলা বিক্রেতা সেজে আজ শনিবার বেলা ১১ টার দিকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। কলা বিক্রেতা সেজে আসামী গ্রেফতারের ঘটনায় উপজেলায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

তবে ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম সংবাদচর্চাকে জানান, অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। হত্যা মামলা হয় নাই। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আসামিও গ্রেফতার হবে। যেকোনো সময় আমরা আসামিকে পেয়ে যাব।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ