আজ বুধবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আজ আইনজীবীদের ভোটের লড়াই

সংবাদচর্চা রিপোর্ট

আইনজীবী সমিতিতে গত কয়েক বছর যাবৎ নেতৃত্ব দিয়ে আসছে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীরা। গতবারও পূর্ণ প্যানেলে বিজয় পায় সরকারি দল সমর্থিত প্রার্থীরা। এবারও সেই ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত অ্যাড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল ও অ্যাড. রবিউল আমীন রনী নেতৃত্বের প্যানেল। মঙ্গলবার পেশাজীবী সংগঠন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির (বার) কার্যকরী পরিষদের (২০২২-২৩) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সমিতির ডিজিটাল ভবনের দ্বিতীয় তলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থীরা বলছেন, গতবারও তাদের প্যানেল নিরঙ্কুশ বিজয় পেয়েছে। এইবারও সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চান। নির্বাচিত হলে সাধারণ আইনজীবীদের কল্যাণে তারা কাজ করবেন। এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রয়েছে। ভোটের দিনও তার কোনো ব্যত্যয় ঘটবে না বলে আশা তাদের।

এই প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী হাসান ফেরদৌস জুয়েল আগেও সভাপতি হিসেবে আইনজীবী সমিতির দায়িত্ব পালন করেছেন। এইবারও তিনি প্রার্থী হয়েছেন। তিনি বলেন, নির্বাচনী পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রয়েছে। সাধারণ আইনজীবীদের জন্য আগেও কাজ করেছি, এবারও নির্বাচিত হলে কাজ করবো।
একই কথা বললেন এই প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক রবিউল আমীন রনী। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উভয় প্রার্থীই বলেন, নির্বাচনে পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হবেন।

হাসান ফেরদৌস জুয়েল আরও বলেন, ‘নির্বাচনে দাঁড়ালে ভোটারদের কাছে যেতে হবে। আইনজীবীদের জন্য কল্যাণকর কিছু করবে এমন প্রতিশ্রুতি দিতে হবে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা তেমন কিছুই করেন না। কেবলমাত্র অভিযোগ করেন তারা। নির্বাচনে কখনও ঝামেলা হয়নি। আগামীতেও হবে না।’

এই প্যানেলের অন্য প্রার্থীরা হলেন: সিনিয়র সহসভাপতি পদে আলাউদ্দিন আহমেদ, সহসভাপতি পদে সুবাস বিশ্বাস, যুগ্ম সম্পাদক পদে মাহমুদুল হক মমিন, কোষাধ্যক্ষ পদে আবুল বাশার রুবেল, আপ্যায়ন সম্পাদক পদে স্বপন ভূঁইয়া, লাইব্রেরি সম্পাদক পদে হাছিব উল হাছান (রনি), ক্রীড়া সম্পাদক পদে সোহেল আজাদ, সাহিত্য সম্পাদক পদে রাজিয়া আমিন কানচি, সমাজসেবা সম্পাদক পদে মোহাম্মদ রাশেদ ভূঁইয়া এবং আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক পদে আব্দুল মান্নান। এছাড়া কার্যকরী সদস্য পদে এরশাদুজ্জামান ইমন, হালিমা আক্তার, হোসেন আহম্মদ, মেরাজ সরকার এবং অঞ্জন দাস।

প্রসঙ্গত, জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী পরিষদের ১৭ পদের জন্য লড়ছেন মোট ৪০ জন প্রার্থী। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী একটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে। বিদ্রোহী প্যানেল থেকে ৬টি পদের জন্য প্রার্থী দেওয়া হয়েছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ