১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, সকাল ৮:৩৯

‘ অহংকার,সন্ত্রাসী করলে আ.লীগের ভোট বাড়বে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেছেন, রাজনীতি মানুষের কল্যানের জন্য। মানুষের কল্যান করলে আওয়ামী লীগের ভোট ব্যাংকও বাড়বে। দম্ভ অহংকার ও সন্ত্রাসী করলে আওয়ামী লীগের ভোট বাড়বে না। আমি সন্ত্রাস করিনা ঝুট ব্যবসা টেন্ডারবাজিও করি না। আমার কোন অনুসারীও তা করে না। সেকারণেই মানুষ আমাকে ভালবেসে ক্লিন ইমোজের নেতা হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বাদ আসর বন্দর প্রেসক্লাবের নতুন ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে আমি সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতার স্বপ্ন দেখেছিলাম। দলও আমার পেছনে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল। কিন্তু জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা মনে করেছিল আমার চেয়ে ভাল যোগ্য প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন এবং আমাদের ডেকে বলেছিলেন আমরা যাকে নৌকা দিয়েছি তার পেছনে ঐক্যবদ্ধ হও তোমাদের ব্যাপারটা আমরা পরে দেখবো।

তিনি আরও বলেন, তোমার জন্য আরও ভালো কিছু আছে এই বলে প্রধানমন্ত্রী আমাকে আশ্বস্ত করেছিলেন। তখন আমি অসহায় হয়ে শয্যাশায়ী হয়ে পড়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রী আমাকে ফোন দিয়ে বললেন, আনোয়ার তোমাকে এমন জায়গা দিবো যেটা আসল জায়গা, যেখানে শুধুমাত্র দলের সিনিয়ররাই থাকে। তখন আমি একটু রাগ করে বললাম আপা আর কি দিবেন? আর আমি এখন অসুস্থ্য। তিনি বললেন, তুমি সুস্থ্য হয়ে শুধু মনোনয়ন জমা দাও। বাকিটা আমি নিজে দেখবো।
আনোয়ার হোসেন বলেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হওয়ার পরে প্রধানমন্ত্রী বললেন, জনপ্রতিনিধি হতে চেয়েছিলে সেটা এখন হয়েছো। এবার জনগণের কল্যাণে কাজ করো। শুধু নারায়ণগঞ্জের সদর, বন্দর নয় আমি সোনারগাঁ, আড়াইহাজার, রূপগঞ্জেও জনগণের জন্য কাজ করেছি। প্রধানমন্ত্রী আমাকে যেভাবে আমাকে দিকনির্দেশান দিয়েছেন সেটা মেনেই আমি কাজ করেছি।

বন্দর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোবারক হোসেন কমল খানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, বন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ দীপক সাহা, নাসিক কাউন্সিলর ফয়সাল সাগর, কাউন্সিলর হান্নান সরকার, কাউন্সিলর সুলতান আহম্মেদ প্রমুখ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ