আজ রবিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সে আমাদের পার্টি করতো না: প্রধানমন্ত্রী

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

নারায়ণগঞ্জের তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর (নাসিম ওসমান সেতু) শুভ উদ্বোধন করেছেন প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১০ অক্টোবর বেলা ১ টায় গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এই সেতুর উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী নাসিম ওসমানের নামে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর নাম করণের কারণ হিসেবে জানান, এটা আমি নাসিম ওসমানের নামেই দিয়েছি। তিনি আমার ভাই কামালের বন্ধু ছিলেন। তার বাবা জোহা সাহেব আমাদের আওয়ামীলীগের নেতা ছিলেন। তার দাদা ওসমান সাহেব, বলতে গেলে আওয়ামী লীগের একটা ঘাঁটি ছিলেন নারায়ণগঞ্জে। এই পরিবারটা সব সময় আমাদের দল ও মুক্তিযুদ্ধে অনেক অবদান রেখেছে। ৭১ সালে যখন আমার মা এবং আমরা সবাই ধানমন্ডির বাসায় বন্দী। ১৬ ডিসেম্বর যখন পাকিস্তানি বাহিনী সেরেন্ডার করে, এই সেরেন্ডার করার পর আমরা কিন্তু মুক্তি পাইনি। পাকিস্তানিরা আমাদের ঘিরে রেখেছিলা। কিন্তু জোহা সাহেব ভেবেছিলো আমরা বোধহয় মুক্তি পেয়েছি। তাই তিনি সেখানে যান। এতে পাকিস্তানিরা আমাদের বাসায় তাকে গুলি করে। কিন্তু তিনি বেঁচে গিয়েছিলেন। তাই তার কথা আমরা স্মরণ করি।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ১৪ আগষ্ট নাসিম ওসমানের বিয়ে হয়। সেখানে কামালও গিয়েছিলো। কামাল ফিরে আসে। কিন্তু যে মুহুর্তে নাসিম শুনলো ১৫ আগষ্টের ঘটনা ঘটেছে, তখন সে নববধূ স্ত্রীকে রেখেই এই হত্যার প্রতিবাদ জানাতে চলে গিয়েছিলো ভারতে। সেখানে সে এই হত্যার প্রতিবাদ করে। সেসব কথা আমরা সব সময় আমি স্মরণ করি। যদিও এক সময় সে আমাদের পার্টি করতো না। সে অন্য পার্টিতে গিয়েছিলো। কিন্তু অন্য পার্টিতে গিয়েও সে ( নাসিম ওসমান) আমার সাথে সব সময় যোগাযোগ ছিলো। বড় বোন হিসেবে সব সময় আমাকে সম্মান করতো। তার একটা আকাঙ্খা ছিলো এই সেতুটির জন্য। বারবার আসতো আমার কাছে, আপা এই সেতুটি করে দেন। কিন্তু যখনই আমরা এই সেতুটি করার কথা চিন্তা করলাম ঠিক তখনই সে আমাদের ছেড়ে চলে গেল। তাই তার স্মৃতিকে ধরে রাখতে, তার নামেই আমরা এই সেতু করেছি।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ