আজ বৃহস্পতিবার, ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সিমেক্সের ওয়েস্টিজে উত্তেজনা

সংবাদচর্চা রিপোর্ট :

বন্দরের সিমেক্স নামক একটি সিমেন্ট ফ্যাক্টরীর ওয়েস্টিজ মালামালকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে সংঘাত ও সংঘর্ষের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।
সূত্র জানায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২০ নং ওয়ার্ডস্থ বন্দর সোনাকান্দা মাহমুদ নগর এলাকায় সিমেক্স সিমেন্ট কারখানার ওয়েস্টিজ মালামাল নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা রিপন ও আজমেরী ওসমানের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত মুকিতের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। গতকাল মুকিত ওই সিমেন্ট ফ্যাক্টরীতে গিয়ে ওয়েস্টিজ মালামাল তাকে ছাড়া অন্য কাউকে না দেওয়ার জন্য হুমকি ধামকি দিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।
সূত্র আরও জানায়, ওই ফ্যাক্টরীর ওয়েস্টিজ মালামাল দীর্ঘদিন ধরেই নামাতেন ২০ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সোহেল করিম রিপন। তবে অনেকদিন ধরেই এই মালামাল নেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছিলেন আজমেরী ওসমানের অনুগামি হিসেবে পরিচিত মোশাঈদ রহমান মুকিত। তবে নিজের কব্জায় থাকা ওই ফ্যাক্টরীর মালামাল মুকিতকে দিতে রাজি ছিলেন না আওয়ামী লীগ নেতা রিপন। এ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই উভয় পক্ষের মধ্যে এক ধরণের উত্তেজনাকর পরিস্থিতি লক্ষ্য করা যায়।
তবে গতকাল মোশাঈদ রহমান মুকিত সিমেক্স ফ্যাক্টরীতে গিয়ে ওয়েস্টিজ মালামাল আওয়ামী লীগ নেতা রিপনকে দিতে বারণ করে আসে। এখন থেকে এই ফ্যাক্টরীর মালামাল সে নিবে বলেও জানিয়ে আসে। এ নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা সোহেল করিম রিপন ও তার অনুগামিদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করলেও মুকিত আজমেরী ওসমানের লোক হওয়ায় সে ক্ষোভ এখনও বিস্ফোরিত হচ্ছে না। তবে ওয়েস্টিজ মালামাল নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে যে কোনো সময় অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটতে পারে বলেই ধারণা করছেন স্থানীয়রা।
প্রসঙ্গত, মোশাঈদ রহমান মুকিত প্রয়াত সাংসদ নাসিম ওসমানপুত্র আজমেরী ওসমান অন্যতম সহযোগি এবং বন্দর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন। অন্যদিকে সোহেল করিম রিপন ২০ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান অনুগামি হিসেবে পরিচিত।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ