২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, রাত ১:৫৯

রূপসীতে স্বদেশ সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুয়া ডাক্তার গ্রেপ্তার

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:

রূপগঞ্জের রূপসী এলাকায় অবস্থিত “স্বদেশ সেন্ট্রাল হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ডায়াগণষ্টিক সেন্টারে” অভিযান চালিয়ে ভুয়া ডাক্তার মোঃ জহুরুল ইসলাম (৩২) কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। রোগী দেখে প্রেসক্রিপশন লেখার সময় বৃহস্পতিবার ( ৫ আগস্ট) তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ভুয়া ডাক্তারের নিকট হতে অন্য ডাক্তারের নাম ব্যবহার করা ১টি প্রেসক্রিপশন (যেখানে ডাঃ বি এম কর্মকার এর ভুয়া সীল ও স্বাক্ষর করা), রোগী দেখার ১টি স্টেথিস্কোপ, ১টি স্পেনোমিটার ও ৩টি ভুয়া সীল জব্দ করা হয়। ভুয়া ডাক্তার মোঃ জহুরুল ইসলাম (৩২) মোঃ শাজাহান আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার ৫ আগস্ট র‌্যাব ১১- এর মিডিয়া অফিসার (আদমজীনগর, নারায়ণগঞ্জ) লেঃ কমান্ডার মাহমুদুল হাসান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
র‌্যাবের এই কর্মকর্তা জানান, মোঃ জহুরুল ইসলাম এর বাড়ি বগুড়া জেলার শেরপুর থানার বনবীর বালা এলাকায়। সে দীর্ঘদিন নিজেকে চর্ম, যৌন, মেডিসিন, মা ও শিশু বিষয়ে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয় দিয়ে “স্বদেশ সেন্ট্রাল হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ডায়াগণষ্টিক সেন্টারে” নিয়মিত রোগীদের বিভিন্ন ডাক্তারী পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও প্রেসক্রিপশন দিয়ে আসছিল। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামী তার ব্যবহৃত সীলে নিজেকে ডাঃ মোঃ জহুরুল ইসলাম, ডি.এম.এফ (ঢাকা), বি.এইচ.এস (স্বাস্থ্য), উপ সহকারী (কো.), মেডিকেল অফিসার; উল্লেখ করেছে। র‌্যাবের অভিযানিক দল নিবন্ধনকৃত চিকিৎসক হিসেবে তার ডাক্তারী সনদ ও বিএমডিসি কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেখতে চাইলে সে কোন ডাক্তারী সনদ ও বিএমডিসি কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেখাতে পারেনি। অনুসন্ধানে আরও জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী বিধি বর্হিভূতভাবে ডাঃ বি এম কর্মকার, এম.বি.বি.এস (ঢাকা) এর নামে ভুয়া সীল তৈরি করে রোগীর প্রেসক্রিপশনে উক্ত সীল ব্যবহার রোগীদের সাথে প্রতারণা করে আসছিল। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ