আজ বুধবার, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রূপগঞ্জ থেকে তাদের সাপোর্ট পাচ্ছে ঢাকা

টি.আই.আরিফ
অপশক্তির ষড়যন্ত্র। টার্গেট হেভিওয়েট আসন রূপগঞ্জ। সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ। চলছে ষড়যন্ত্র আর অপশক্তির বিরুদ্ধে ক্ষমতায় টিকে থাকার লড়াই। বুদ্ধির খেলা শুরু। কেনা হচ্ছে —। উত্তপ্ত রাজপথ। বিএনপিতে কোন্দল। মাঠ গোছাচ্ছেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ,বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক,এমপি। তার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ রূপগঞ্জ আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। নেতারা তার পক্ষে কাজ করছে। সভানেত্রীর আস্থা অর্জন করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীও তাকে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন।
সহজে কেউ ভাংতে পারবে না তার রেকর্ড। নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সদস্য সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালনের টানা ১৪ বছর পূর্ণ করেছেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক। তিনি ২০০৮, ২০১৪,২০১৮ সালে আওয়ামীলীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। গাজী ছাড়া রূপগঞ্জে টানা এতদিন ক্ষমতায় থাকার রেকর্ড কারও নেই। ৪র্থ বার সংসদ সদস্য হওয়ার চেষ্টায় আছেন তিনি। মানবিক কাজেও সক্রিয় তিনি। চব্বিশের ভোটকে ঘিরে রূপগঞ্জকে বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছে শাসক দল। মাঠে তৎপর রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজী ও তার অনুগতরা। দলনেত্রীর নির্দেশনায় মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন তিনি। করে যাচ্ছেন গণসংযোগ ।
চলতি বছরেই আপাতত দুইবার রূপগঞ্জে এসেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয় নির্বাচনের আগে সুধী সমাবেশকে মহাসমাবেশে রূপ দিয়ে নিজের অবস্থানের জানান দিলেন গোলাম দস্তগীর গাজী।
গত ২ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জের পূর্বাচলে বাংলাদেশের প্রথম পাতাল মেট্টোরেল এমআরটি লাইন-১ এর নির্মাণ কাজ উদ্বোধন উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সমাবেশে এতো লোক দেখে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গোলাম দস্তগীর গাজীকে আকার-ইঙ্গিতে বোঝালেন প্রধানমন্ত্রী। তাকে প্রার্থী হিসেবে প্রচার করছে দলটির নেতাকর্মীরা। নেত্রীকে ক্ষমতায় টিকে রাখার জন্য তিনি ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়ছেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বেশি নেতার দরকার নেই। গাজী সাহেব আছেন। ডিসেম্বরে ফাইনাল খেলা।
গত ১১ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জের ৪০ টি স্পটে শান্তি সমাবেশ ও মিছিল করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী।এর আগে গত ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশের সময় রূপগঞ্জের রাজপথ দলে রাখেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী। ৩০ টি স্পটে সেদিন প্রতিবাদ মিছিল করেন তিনি। যা নারায়ণগঞ্জের অন্য এমপিদের করতে দেখা যায়নি। তার গুরুত্ব বাড়ছে । প্রমাণ দিচ্ছেন কাজে। দলনেত্রীও তাকে ডাকে। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে সম্মাননা প্রদান করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী। বদলে যাচ্ছে দৃশ্যপট। জেগে উঠেছে নেতাকর্মীরা। ঢাকার খুব কাছে রূপগঞ্জ। ঢাকায় আওয়ামী লীগের দলীয় কর্মসূচি সফল করতে রূপগঞ্জ থেকে ভূমি রাখছে গাজী পরিবার। দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে ঢাকায় সমাবেশে যোগদান করতে দেখা গেছে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ,বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক, সহ-সভাপতি ও তরুণ শিল্প উদ্যোক্তা গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা, তারাব পৌর মেয়র হাছিনা গাজীকে । ঢাকা থেকে ডাক পড়লে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা তাদের নেতৃত্বে ঝাপিয়ে পড়েন। সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ থেকে সবচেয়ে বড় মিছিল নিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগ,ছাত্রলীগের সমাবেশে যোগদান করেন মন্ত্রীপুত্র গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা। তার মিছিল দেখে দলটির কেন্দ্রীয় নেতারাও তার প্রশংসা করছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে গুরুত্বসহকারে গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পার মিছিলের ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। এছাড়া মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগের জাতীয় সম্মেলনে রূপগঞ্জ থেকে বিশাল মিছিল নিয়ে যোগদান করেন রূপগঞ্জ উপজেলা মহিলা লীগ সভাপতি ও তারাব পৌর মেয়র হাছিনা গাজী। তাদের ভালো সাপোর্ট পাচ্ছে ঢাকা। রূপগঞ্জে ভালোই চলছে দল। তাদের নামে নেই কোন অনিয়ন,দুর্নীতির অভিযোগ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ