আজ বুধবার, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কমিটি নিয়ে ক্ষোভ

নবকুমার:

রূপগঞ্জে বিএনপিতে মাইনাসের রাজনীতি তুঙ্গে। গ্রুপিং আর কোন্দলে জর্জরিত দলটির নেতারা। এবার রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ঠাঁই মেলেনি বিএনপির এমপি প্রার্থী কাজী মনিরুজ্জামানের। তারাব পৌর বিএনপির আহবায়ক পদ হতে সরে দাঁড়িয়েছে আলহাজ¦ নাসির উদ্দিন। গত ৪ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জ থানা , তারাব ও কাঞ্চন পৌর বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপুর অনুগত নেতারা অধিকাংশ পদ ভাগিয়ে নেয়। এতে তৃণমূলের কিছু নেতাকর্মী ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একাধিক নেতা জানান, ‘রূপগঞ্জে বিএনপির কমিটির নামে পদ বাণিজ্যের মহাউৎসব হয়েছে। দিপু ভুইয়া এতো টাকা কোথায় পায়? তিনি একতরফা কমিটি করেছে। বেনজির সাহেব বিএনপিকে ধ্বংস করছে। রূপগঞ্জ থানা বিএনপির কমিটিতে সিনিয়রদের মূল্যায়ন করা হয়নি। তারাব থেকে নাসিরকে বাদ দেওয়া হয়েছে। অযোগ্যরা বড় পদে এসেছে। এই সব কমিটির বিরুদ্ধে অচিরেই জুতা ও ঝাড়ু মিছিল হবে’।

পদ বঞ্চিত নেতাদের অভিযোগ টাকা নিয়ে কমিটি করেছে। তারা আরও জানান, যারা কমিটি করেছে তারা দলের মঙ্গল চায় না। দল একদিন টেরপাবে। কাজী মনির সাহেব খুবই ভদ্র লোক । তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। যিনি ধানের শীষ প্রতীকে লড়েন ,তাকে থানা বিএনপির কমিটিতে রাখা হয়নি।
দীপু ভুঁইয়া ১ নম্বর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। তাহলে কি কাজী সাহেব দীপুর চেয়ে ছোট নেতা? তৈমূরের অনুগতরাও কোণঠাসা। সাবেক ছাত্রদল ও যুবদলের কিছু নেতা বাদ পড়ছে।

এড. মাহফুজুর রহমান হুমায়ূনকে সভাপতি ও বাছির উদ্দিন বাচ্চুকে সাধারণ সম্পাদক করে রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি।
গত শনিবার রাতে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন ও সদস্য সচিব গোলাম ফারুক খোকন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়।
রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি- হাজী মোঃ সেলিম আহমেদ, হাজী আনোয়ার সাদাত সায়েম, আশরাফুল হক রিপন, আব্দুল আজিজ মাস্টার, কাজী রেজাউল হক, এড.মাহমুদুল আহসান খোঁকা, মো: মোস্তফা কামাল, মো: আব্বাস উদ্দিন ভুঁইয়া, হারুনুর রশীদ মিয়াজী, এড.হেলাল উদ্দিন সরকার, আঃ মজিদ ভুঁইয়া , নূর নবী ভুঁইয়া, এড. গোলজার হোসেন (চেয়ারম্যান),আঃ মতিন (চেয়ারম্যান) , আলমগীর হোসেন টিটু ( চেয়ারম্যান),সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম, আমিরুল ইসলাম জোসেফ, বেলায়েত হোসেন আকন্দ, মোজাম্মেল হক, হাবিবুর রহমান বাবুল, নির্বাহী সদস্য পদে আছেন জেলা বিএনপির সদস্য সচিব গোলাম ফারুক খোকন, শরীফ হোসেন টুটুল—-। এদের মধ্যে কেউ কেউ দলের নির্দেশ অমান্য করে ইউপি নির্বাচনে লড়েছে।
এছাড়া তারাব পৌর বিএনপির আহবায়ক তাশিক হক (ওসমান),সদস্য সচিব হাফিজুর রহমান পিন্টু, কাঞ্চন পৌর বিএনপির আহবায়ক আলহাজ¦ মজিবুর রহমান ভুঁইয়া, সদস্য সচিব মফিকুল ইসলাম খাঁন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ