আজ বুধবার, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

‘রূপগঞ্জে নির্বাচন হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ’

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

রূপগঞ্জে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। গতকাল ৩০ নভেম্বর ছিলো মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। এদিন পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে মোট ৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক এমপি, তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমূর আলম খন্দকার, জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আফাজউদ্দিন, জাকের পার্টির যুবায়ের আলম, স্বতন্ত্র প্রার্থী রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা (ড্যামি প্রার্থী) , রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ শাহজাহান ভুঁইয়া (বিদ্রোহী প্রার্থী), উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব।
গত ২৯ নভেম্বর দুপুরে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ফয়সাল হকের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক, এমপি।
মন্ত্রী জানান, আসন্ন সংসদ নির্বাচন হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ । সবাই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন। রূপগঞ্জের জনগণের সমর্থন নিয়ে আমি নির্বাচনে এসেছি। জনগণ আমার মূলশক্তি। কোন জাল ভোট হবে না। ফ্রি এন্ড ফেয়ার ইলেকশন হবে। বিজয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। আমি ১৫ বছর যাবত রূপগঞ্জের জনগণের সাথে আছি। জনগণের সাথে আমার সম্পর্ক গভীর।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর, নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত এবং ভোটগ্রহণ ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
প্রসঙ্গত নারায়ণগঞ্জ-১ আসন থেকে এর আগে গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক আওয়ামীলীগের মনোনয়নে টানা ৩ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন (২০০৮,২০১৪,২০১৯)। এবার তিনি চতুর্থবার সংসদ সদস্য হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। মন্ত্রীর রূপগঞ্জে রয়েছে বিশাল ভোট ব্যাংক। রূপগঞ্জে এবার মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬শত ১৬ জন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ