আজ বৃহস্পতিবার, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

রফিক,মিজান,ইয়ারসহ ১৫ জনকে দল থেকে বহিষ্কার

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

কায়েতপাড়ায় দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নৌকার বিপক্ষে কাজ করায় আওয়ামী লীগের ১৫ জনকে দল থেকে চূড়ান্তভাবে অব্যাহতি দিয়ে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে। গত ৬ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারকৃতরা হলেন বিদ্রোহী প্রার্থী মিজানুর রহমান, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান রফিক, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ইয়ার হোসেন, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য শামসুল আলম, করিম পাঠান, ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, ৬ নং আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলাউদ্দিন , ১ নং ওয়ার্ড (নাওড়া ) আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সদস্য মমিনুল হক, আনার উদ্দিন, হরিনার আব্দুল জলিল, কায়েতপাড়া ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আমিন বেপারী, ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ মিজানুর রহমান মিজান, কায়েতপাড়া ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সামসুল হক।

গত ৭ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল তাদেরকে দল থেকে বহিস্কারের চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন। তাদেরকে দল থেকে বহিস্কার সুপারিশের চিঠি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে। যে কোনো সময় উক্ত ব্যক্তিরা বহিস্কারের চিঠি পাবে। এছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খন্দকার আবুল বাশার টুকুকে সতর্ক বার্তা দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। তিনি দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করলে দলীয় আইনে তার বিরুদ্ধে শাস্তিসহ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইঞ্জি. শেখ সাইফুল ইসলাম জানান, বহিস্কৃতদের নামের তালিকা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর চিঠির আলোকে তাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ