১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, সকাল ৮:১০

‘ভোট কেন্দ্রের রেজাল্ট দেখে দলীয় পদ নির্ধারণ হবে ’

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

মন্ত্রীপুত্র ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা বলেছেন, ভোলাব এবং কায়েতপাড়ায় জননেত্রী শেখ হাসিনা যাদেরকে মনোনয়ন দিয়েছেন তারা অবশ্যই যোগ্য ব্যক্তি। নেত্রীর দেওয়া নৌকার মান রক্ষার দায়িত্ব মুজিব আদর্শের প্রত্যেকটা নেতাকর্মীর। নেত্রীর একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে আমি বলছি আমরা নৌকাকে হারতে দেবো না। যারা নৌকার সাথে বেইমানি করবে, তাদেরকে কোনো ক্ষমা করবো না। যারা ভুল পথে হাটার চেষ্টা করছেন তাদেরকে বলবো ১২ ই নভেম্বর কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকবে।

রূপগঞ্জে আওয়ামী রাজনীতির ভবিষ্যত কান্ডারি গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমি একটা কথা বলে দেই, আপনারদের ভোট কেন্দ্রের রেজাল্ট দেখেই কিন্তু আপনাদের দলীয় পদের নির্ধারণ হবে, অন্য কিছু দেখে না। আপনারা জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকার মধ্যে যতবেশি ঘাম ঝড়াবেন , সেই ঘামের বিনিময়ে আপনাদেরকে সম্মানিত করা হবে, অন্য কিছু দেখে না । দয়া করে যার যার ওয়ার্ডে নৌকার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ুন। এটা ছাড়া আর কোনো রাস্তা নাই। আমি বলি এটা নির্বাচন নয়, এটা আমাদের নৌকার অস্তিত্ব রক্ষার নির্বাচন। নির্বাচনের দিন আমরা যার যার ভোট কেন্দ্রে অবস্থান নেবো। সমাজ বা পরিবারে আমাদের নৌকার যে বয়স্ক বা অসুস্থ ভোটার আছে তাদেরকে আমরা ভোট কেন্দ্রে আনার ব্যবস্থা করে দেবো। সবাই সচেতন থাকবো। নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করবো।

বুধবার ( ৩ নভেম্বর) কায়েতপাড়া ও ভোলাবতে নৌকার পক্ষে গণসংযোগ শেষে এক পথসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভোলাব আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমাকে না দেখিয়ে আপনারা যার যার ওয়ার্ডে নৌকার মিছিল করেন, গণসংযোগ করেন , তাতে নৌকার জোয়ার বাড়বে। জয়ের পথে আমরা এগিয়ে যাবো। নির্বাচন হচ্ছে পায়ের লক্ষী। প্রত্যেকটা ভোটারের কাছে যেতে হবে।

ভোলাববাসীর উদ্দেশে মন্ত্রীপুত্র বলেন, আপনারা সিদ্ধান্ত নেবেন আগামী ৫ বছর ভালো থাকবেন কিনা। আপনাদের একজন প্রার্থী হচ্ছে ভূমিদস্যু, আরেকজন হচ্ছে আইনজীবী। এখন কাকে বেছে নেবেন সিদ্ধান্ত আপনার। এই এলাকার মা-বোনদেরকে বলবো আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিন, নির্বাচনের পরে আমি আপনাদের গ্যাসের সংযোগের ব্যবস্থা করে দেবো।

এসময় ভোলাব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন খাঁন, সাধারণ সম্পাদক হাসান আশকারী, ভোলাব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ প্রার্থী এড. তায়েবুর রহমান, কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জি. শেখ সাইফুল ইসলাম, এমায়েত হোসেন, আলহাজ্ব তাবিবুল কাদির তমাল, আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হারেজ, আব্দুল আজিজ, মতিউর রহমান আকন্দ , রূপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কামরুল হাসান তুহিন, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহীন , দৈনিক সংবাদচর্চার সম্পাদক মো: মুন্না খাঁন, যুবলীগ নেতা তানভীর হাইসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ