১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, সকাল ৭:২০

‘ভাইয়ের লোক বিবেচনা করি নাই’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘আমি আমার ২৭ টি ওয়ার্ডের ৩৬জন কাউন্সিলরের সাথে ভেদাভেদ করি নাই। কে আওয়ামী লীগ করে, কে বিএনপি করে, কে জাতীয় পার্টি করে, কে ভাইয়ের লোক, কে আইভীর লোক তা বিবেচনা করি নাই। আমি কখনও আইভীর লোক কাউকে বানানোর চেষ্টা করি নাই। সবসময় কাউন্সিলরদের মানুষের ভাই হতে বলেছি, জনগণের কাছে যেতে বলেছি। আশা করি, কোভিডকালীন সময়ে কাউন্সিলররা যেভাবে আপনাদের পাশে এসে দাড়িয়েছে সেই কথা আপনারা মনে রাখবেন।’

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নগরীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাপ্পী চত্ত্বর এলাকায় এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে ওই এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা সড়কের নামফলক উন্মোচন করেন সিটি মেয়র।

মেয়র আইভী বলেন, ‘শ্রদ্ধেয় টি হোসেন সাহেব, গিয়াসউদ্দিন কাকা, ছোট ভাই বাপ্পীকে স্মরণ করছি। ২০০৩ সালে শোচনীয় সময়ে টেলিফোনে আমাকে পৌরসভার নির্বাচনে সমর্থন দিয়েছিলেন গিয়াসউদ্দিন কাকা। বাপ্পীকে ছোটবেলায় দেখেছি। ওর নির্মম মৃত্যু না হলে এ শহরের অনেক বড় নেতা হতো সে। অনেকের চক্ষুশূল হবার কারণে বাপ্পী আমাদের মাঝে নাই। ছাত্রলীগ নেতা রনির কথাও আজ বলতে চাই। অনেকেরই হয়তো মনে আছে, ২০১১ সালের নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সামনে রনিকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শামীম ওসমান মারধর যেভাবে করেছিল, সেখানে র‌্যাব উপস্থিত না হলে রনিকে সেদিন মেরে ফেলা হতো। আমি জানি না রনি এখানে আছে কিনা। এই অঞ্চলে আসলে আমি মানুষগুলোর কথা মনে করি।’

তিনি বলেন, ‘বিগত ৫ বছরে কবির কাকা তার ওয়ার্ডে প্রচুর কাজ করেছেন। ওনার সৌভাগ্য যে ওনাকে প্রচুর টাকাও দিতে পেরেছিলাম। সাবেক কাউন্সিলর মুন্না সাহেবও কাজ করেছেন। কিন্তু মানুষ যাকে যখন বাছাই করে সেই নির্বাচিত হয়ে আসে।’

মেয়র বলেন, ‘শেখ হাসিনা আমার নেত্রী, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অন্তরে লালন করি। আমার বাবা আলী আহাম্মদ চুনকা আওয়ামী লীগ করেছেন। আমি আমৃত্যু এই দল করে যাবো। আমৃত্যু জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু বলবো। কিন্তু কাজ করার সময় দলমতের উর্ধ্বে উঠে কাজ করি। এটা আমি নির্বাচনের আগেও বলি, পরেও বলি। আমি আপনাদের সকলের মেয়র, সকল দলের জনগণ আমার কাছে সমান। কিন্তু আমার পরিচয়, আমি শেখ হাসিনার কর্মী।’

আইভী বলেন, ‘এটা কোনো নির্বাচনী সভা না। নির্বাচনী কার্যক্রম আমি শুরু করি নাই। আমার নেত্রী যতক্ষন আমাকে না বলবেন ততক্ষন পর্যন্ত আমি নির্বাচনী সভা শুরু করবো না।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ আফসানা আফরোজ বিভা হাসান, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবির হোসাইন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শরফুদ্দিন রবি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোসেন সিদ্দিকী প্রমুখ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ