আজ রবিবার, ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিএনপি নেতা নুরুল ইসলাম রিপনের আ.লীগে যোগদান

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:
রূপসী এলাকার বিএনপি নেতা নুরুল ইসলাম রিপন আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। শুক্রবার ( ২৬ আগস্ট) সকালে রূপসী গাজী ভবনে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীকের হাতে ফুল দিয়ে নুরুল ইসলাম রিপন আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, হাবিবুর রহমান হাবিব, ফিরোজ ভুঁইয়া, মুন্না খান,সাবেক কমিশনার নজরুল ইসলাম মফিজ, মেহেদী হাসান বাবেল, লিটন মিয়া, আরফাতুল্লাহ,দিনার, হাবিবুল্লাহ,রিপন ভুঁইয়া,ফারুক ভুঁইয়া,শফিক ভুঁইয়া,ওপেল ভুঁইয়া প্রমুখ।

হালিম ভুইয়া বলেন- রূপসী আমাদের এলাকা, আমরা একই পরিবারের সদস্য, আমাদের অভিভাবক আমাদের মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। আমরা অতীতেও স্যারের সাথে ছিলাম ভবিষ্যৎ তেও থাকবো।

নুরুল ইসলাম রিপন বলেন- আমি দীর্ঘদিন বিএনপির রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলাম, কিন্তু ২/৩ বছর যাবত আমার শারীরিক অসুস্থতার কারনে আমি সক্রিয় রাজনীতি থেকে দূরে ছিলাম। যেহুতু মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় আমার প্রতিবেশী তাই তার প্রতি আমার ভালোবাসা, দূর্বলতা সবসময়ই ছিলো। আমরা একই সমাজের বাসিন্দা। আমরা উনার জন্য রূপসীর মানুষ নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, গ্যাস রাস্তাঘাট,স্কুল মসজিদ ইত্যাদি পেয়েছি। তাই আমাদের এলাকায় অন্য কোন কিছুর উন্নয়ন আর বাকী নেই। তাই সামাজিক অবস্থা,পারিবারিক সিদ্ধান্ত ও আমার প্রিয় বন্ধুবান্ধবদের পরামর্শ নিয়ে আমি আজকে থেকে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে আওয়ামী লীগে সক্রিয়ভাবে পথচলা শুরু করছি।

নারায়ণগঞ্জ -১ ( রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ,বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক বলেন, রূপসী আমার গ্রাম, এই গ্রামের প্রতিটি মানুষ আমার পরিবারের সদস্য, আমি কাউকে আলাদা চোখে কখনও দেখিনি। আমাদের রাজনৈতিক বিরোধ থাকতে পারে কিন্তু ব্যক্তি বিরোধ নাই। রিপন আমার সন্তানের মতো। সে আমার সাথে অতীতেও ছিলো, বর্তমানে রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় কর্মী হিসেবে কাজ করবে। আমি তার মঙ্গল কামনা করছি। পরে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ,বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী ফুল দিয়ে নুরুল ইসলাম রিপনকে বরণ করে নেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ