১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, সকাল ৮:৫৭

বিএনপি নেতা আজাদকে জুতাপেটার ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ শহরের যেখানেই বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদকে পাওয়া যাবে সেখানেই তাকে জুতাপেটা করবে ঘোষণা দিয়েছেন জেলা যুবদলের সহ সভাপতি পারভেজ মল্লিক।

রোববার (৩১ অক্টোবর) আড়াইহাজারে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ ঘোষণা দেন , যা গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। তার এ ঘোষণায় ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। অনেকে এটাকে ভালো মনে করছে না।
পারভেজ মল্লিক বলেছেন, ইতিহাস স্বাক্ষী দিচ্ছে। যেই দেশে মুক্তিযোদ্ধা ছিল ওই দেশে রাজাকারের বাচ্চা ছিল। যেই দেশে বিএনপি আছে ওই দেশে নজরুল ইসলাম বাবু মার্কা বিএনপি নেতাও আছে। যারা দুয়েকটা বক্তব্য দিয়ে সেন্টারের দু-চারজন নেতাকে ম্যানেজ করে বাবুকে খুশি করতে চায়। তারা কোনদিন শহীদ জিয়ার ছেলে তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করতে চায় না।

তিনি বলেন, মাহমুদুর রহমান সুমন হাওয়া ভবনের তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর খুব কাছের ব্যাক্তিত্ব ছিলেন। তিনি কোন হাওয়া ভবনের ড্রাইভার ছিলেন না। আজকে যারা বড় বড় বিএনপি নেতা হতে চায় তাদের হুশিয়ার করে দিতে চাই। খবরদার বলে দিলাম তোমার মাটিতে দাঁড়িয়ে বিগত দিনে নারায়ণগঞ্জে বলেছি তোমাকে যেখানে দেখা হবে জুতা দিয়ে পিটানো হবে। আজকে আড়াইহাজারের মাটিতে দাঁড়িয়ে তাকে বলছি আন্তর্জাতিক মার্কাটাকে, ভাল হয়ে যান। রাতের আধারে ওয়েস্টিনে বসে এক কাপ কফি খাইয়ে যদি ভাবেন আপনি পাপিয়া মার্কা নেতা হবেন সম্রাট মার্কা নেতা হবেন, তাহলে আওয়ামী লীগ করেন। নাহলে আড়াইহাজার দূরে থাক। নারায়ণগঞ্জের কোন জায়গায় থাকতে পারবেন না। আন্তর্জাতিক মার্কা নেতা ভাল হয়ে যান। টাকা দিয়ে স্বেচ্ছাসেবক দল আনবেন, ছাত্রদল আনবেন, যুবদল আনবেন, বাটপারি চিটারি ছেড়ে দেন। এ দল আমার আদর্শের নেতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের দল, এ দল স্বাধীনতার পক্ষের দল লাল সবুজের পতাকার দল। খবরদার তোমার মাস্টারির দল না।

তিনি আরো বলেন, আড়াইহাজারের এই মানুষগুলো বুঝে নাই যে আপনি ক্ষমতা থাকতে ক্ষমতার অপব্যবহার করেন নি। যাদের ক্ষমতা নাই, যারা ড্রাইভারি করেছে তারা কিছু লোককে ব্লাকমেইল করে। আজকে আড়াইহাজারে অপপ্রচার চালাতে চাচ্ছে। আমার বাড়িতে আসো দেখা করো তাহলে যুবদল ছাত্রদল তোমার হাতে চলে যাবে। এ ধরনের চরিত্রের নেতাদেরকে আমরা ঘৃণার সাথে আজকে স্মরণ করছি, তাদের ডাস্টবিনে ছুড়ে ফেলে দিচ্ছি। আমি শুধু আড়াইহাজারবাসীকে একটা প্রশ্ন করবো। সুমন ভাই এতদিন লুকায় ছিল আর লুকানোর সময় নাই। সুমন ভাইকে আমরা চিনে গেছি। সুমন ভাইকে সামনে রেখে আমার নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও স্বৈরাচারী শেখ হাসিনার পতনের আন্দোলন আমরা করবো। সুমন ভাই শুধু আড়াইহাজার নিয়ে বসে থাকলে হবে না। আমি ব্যাক্তিগতভাবে জানি। আপনি যেখান থেকে এসে আজকে এই চেয়ারে বসেছেন। ওইখান থেকে আপনাকে ভালবাসে।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ