১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, রাত ৮:২২

বিআরটিসির ভাড়া কমলো

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বিআরটিসি আরও ৩ টাকা ভাড়া কমিয়েছে। এ রুটে বাড়ানো হয়েছে নন এসি বাসের সংখ্যা। সেই সাথে আগামী মার্চ মাস থেকে এসি বাস চালু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানোর পাশাপাশি যাত্রি অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বেসরকারী খাতে বাস ভাড়া কমানোর দাবি জানিয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ নভেম্বর ২০২১ যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধি দল বিআরটিসি মতিঝিল কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জে বিআরটিসির সেবা ও কয়েকটি দাবি নিয়ে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলামের সাথে সাক্ষাৎ করে একটি স্মারক লিপি প্রদান করে। দাবিগুলো ছিলো ১। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে নন এসি বাসের ভাড়া ৩৮ টাকা থেকে কমিয়ে সর্বোচ্চ ৩৪ টাকা নির্ধারণ করা, ২। বিআরটিসি নন এসি বাসের সংখ্য বৃদ্ধি করা, ৩। বিআরটিসি এসিবাস সর্বোচ্চ ৫৫ টাকা ভাড়ায় পুনরায় চালু করা, ৪। বিআরটিসি বাসে ছাত্রদের জন্য অর্ধেক ভাড়ার সুবিধা প্রদান। প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান আন্তরিকতার সাথে দাবিগুলো বিবেচনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এর দু’দিন পরই ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ননএসি বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়। ঢাকায় ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে পরে সারাদেশেই বিআরটিসি বাসে ছাত্রদের অর্ধেক ভাড়া ঘোষণা করে সরকার। আজ থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ননএসি বিআরটিসি ভাড়া ৩৫ টাকা কার্যকর হয়েছে। আগামী মার্চ থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে এসি বাস চলবে বলে আশ^স্ত করেছেন বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ। নারায়ণগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে তাদের এ পদক্ষেপকে সাধুবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন ফোরাম নেতৃবৃন্দ।

তারা বেসরকারী গণপরিবহনের ভাড়াও কমানোর দাবি জানিয়েছে। সম্প্রতি জ¦ালানি তেলেন দাম বৃদ্ধির পর বিআরটিএ গণপরিবহনের যে ভাড়া নির্ধারণ করে তাতে সিএনজি চালিত পরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি না করার প্রতিশ্রুতি দেয়। অথচ নারায়ণগঞ্জে উৎসব ও বন্ধন পরিবহনের বাসগুলো (চার-পাঁচটি সিএনজিতে) ডিজেলে চলে। নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যসব পরিবহনগুলো সিএনজিতে চললেও সে সবের ভাড়াও অধিক বৃদ্ধি করা হয়েছে।

তারা উল্লেখ করেন, বিআরটিসি ত্রৈমাসিক যে বুলেটিন প্রকাশ করে, তাতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটের প্রতিমাসে দশ লক্ষ টাকা লাভ হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ৩০ টাকা ভাড়া নিয়ে প্রতি মাসে যেখানে তাদের এই লাভ হচ্ছে- সেখানে বেসরকারী গণপরিবহনে লোকসানের অজুহাতে এমনি অত্যাধিক ভাড়া বৃদ্ধি কোন ভাবেই কম্য নয়। আমরা মনে করি এখানে সিন্ডিকেটের চাদার কারণে তারা এভাবে ভাড়া বৃদ্ধি করে চলেছে। যাত্রী অধিকার সংক্ষন ফোরাম এর আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি, সদস্য সচিব ধীমান সাহা জুয়েল সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরটিসির চেয়ারম্যান হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসককে কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ