১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, বিকাল ৩:২৯

বাবার বুক ফাটা কান্না

বন্দর প্রতিনিধি:

বন্দরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দ্ইু শিক্ষার্থী হত্যাকারিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বন্দর প্রেসক্লাবের সামনে নিহত শিক্ষার্থীদের স্বজন ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

২২ নং ওয়ার্ডের সমাজ সেবক ও জাতীয়পার্টি নেতা এবং নিহত কলেজ ছাত্র মিনহাজুল ইসলাম মিহাদের দাদা বাহাউদ্দিন খানের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি মোবারক হোসেন কমল খান, সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিন সিদ্দিকী, ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুলতান আহাম্মেদ, ২২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা কাজী সহিদ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা খান মাসুদ, যুবলীগ নেতা সামছুল আলম, নিহত স্কুল ছাত্র জিসানের পিতা সাংবাদিক কাজিম আহাম্মেদ নিহত মিহাদের পিতা নাজিম উদ্দিন খান, বন্দর র্গালস স্কুলের অভিভাবক প্রতিনিধি অ্যাড. মাজহারুল আলম পাভেল খান ও শ্রমিক পার্টি নেতা তপন খান প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে জাপা নেতা বাহাউদ্দিন খান বলেন, আমি বক্তব্যের শুরুতেই আমার নাতি মিহাদ ও তার বন্ধু জিসান হত্যা মামলার এজাহার নামিয় আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি প্রশাসনের কাছে। সেই সাথে আমি প্রকৃত খুনিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি। প্রশাসনের উপর আমাদের আস্থা রয়েছে।

মানববন্ধনে নিহত স্কুল ছাত্র জিসানের পিতা কালের কথা’র প্রকাশক ও সম্পাদক কাজিম আহাম্মেদ কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোদের জের ধরে আমার ছেলেকে বাড়ি তেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে সন্ত্রাসী আনোয়ার, আহাম্মদ আলী ও মোক্তার, শামীম এবং শাকিল গং। আমি আমার একমাত্র সন্তান হারিয়ে আজ আমি নিঃস্ব । আমি আমার ছেলে ও তার বন্ধু মিহাদের হত্যাকারিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি প্রশাসনের কাছে।

নিহত কলেজ ছাত্র মিহাদের পিতা নাজিম উদ্দিন খান বলেন, কি দোষ করেছিল আমার ছেলে মিহাদের। তাকে এভাবে প্রান দিতে হলো। আমি মিহাদ ও জিসান হত্যা মামলার আসামীদের ফাঁসি দাবি জানাই।

মানববন্ধনে বন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি মোবারক হোসেন কমল খান বলেন, সন্ত্রাসীদের থাবায় আর কত প্রান হারাবে আমাদের সন্তানরা। আমার ভাতিজা মিহাদ ও আমার সহকর্মী কাজিম আহাম্মেদের ছেলে জিসানকে হারিয়ে আমি আজ মর্মাহত। আমরা হত্যাকারিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি প্রশাসনের কাছে।

এসময় আরও উপস্তিত ছিলেন বন্দর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জি.এম. মাসুদ, আতাউর রহমান, বন্দর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কবির হোসেন, অর্থ সম্পাদক ইমরান মৃধা, বন্দর প্রেস ক্লাব সদস্য দ্বীন ইসলাম দিপু, রোটারিয়ান ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোয়াজ্জম হোসেন, বন্দর বিএম ইউনিয়ন স্কুর এন্ড কলেজের অভিভাবক প্রতিনিধি পনির ভূইয়াসহ স্থানীয় এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ