আজ বৃহস্পতিবার, ৯ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বন্দরে জাতীয় সেবায় ফোন, উদ্ধার দু’জন

জাতীয় সেবা ৯৯৯ এর সহযোগীতায় বন্দর থেকে অহরণের শিকার মিশুক চালক ও একজন যাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই সাথে অপহরণ চক্রের এক সদস্যকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ। শনিবার বেলা ১১টার দিকে বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের একটি তুলার মিলের ভিতর থেকে আল আমিন (২৫) ও তার বন্ধু রনী (২৬)কে উদ্ধার করা হয়।

এ সময় পুলিশ মাসুম রানা নামের এক যুবককে অপহরণ চক্রের সদস্য সন্দেহে আটক করে। এই ঘটনায় শনিবার মিশুক চালক আ-আমিন বাদী হয়ে সাত জনের বিরুদ্ধে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা। তিনি জানন, জাতীয় সেবা ৯৯৯ এর সংবাদের প্রেক্ষিতে বন্দর থানা পুলিশের একটি দল অহরণের শিকার একজন মিশুক চালক ও মিশুকের একজন যাত্রীকে উদ্ধার করেছে। সেই সাথে অপহরণ চক্রের একজন সদস্যকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা বন্দর পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) বারেক হাওলাদার জানিয়েছেন, গ্রেপ্তার হওয়া মো. মাসুম রানাকে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছিল। পরে আদালত শুনানি শেষে অভিযুক্তকে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে। অপহরণের ঘটনায় জড়িত মো. বুলেট, মো. মামুন, মো. ফয়সাল মিয়া, মো. পারভেজ মিয়া, হুমায়ন কবির ও খোকন ওরফে চোক্কা খোকনকে গ্রেপ্তারের জন্য একাধিক স্থানে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করছে।

(সংবাদচর্চা/১২জুন/এমএল)

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ