আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বড় ভাইয়ের প্রতিদ্বন্দ্বী ছোট ভাই

স্টাফ রিপোর্টার :

আওয়ামী লীগের আলোচিত এমপি শামীম ওসমানের সাথে বেশ সখ্যতাই ছিলো মাওলানা ফেরদাউসুর রহমানের। ভরা মজলিসে ফেরদাউসকে ছোট ভাই বলে সম্বোধনও করেছিলেন শামীম ওসমান। সেসময় সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীর বিরুদ্ধাচারণ করতে দেখা গিয়েছিল মহানগর জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সভাপতি ফেরদাউসকে। এমনকি চিরচেনা ডায়ালগ ‘খেলা হবে’ স্লোগাণ তুলেও ফেরদাউস শামীম ওসমানের অনুকরণ করেছিলেন একাধিকবার। সময়ের ব্যবধানে এবার সেই ছোট ভাই-ই যেন বড় ভাইয়ের সমালোচনা করেছেন।

সম্প্রতি একটি গণমাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের নির্বাচন ও উন্নয়নের প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান শামীম ওসমান ইস্যুতে বলেছেন, আমরা বিএনপির উন্নয়নও দেখেছি, আওয়ামী লীগের উন্নয়নও দেখেছি। সেক্ষেত্রে স্বাধীনতার পর থেকে আমরা নারায়ণগঞ্জে যে চিত্র দেখেছি, কাঙ্খিত সেই উন্নয়ন নারায়ণগঞ্জবাসী দেখেনি। বৃষ্টি হলে এখনও পানি জমে যায়, সবসময় যানজট থাকে, বর্তমান চাষাঢ়া এখনও আগের চাষাঢ়াই রয়েছে। জনগণ সবাই অতিষ্ঠ।’

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমানের নির্বাচনি ওই অঞ্চল নিয়ে ফেরদাউসুর রহমানের এমন বক্তব্যে হতভম্ব হয়েছেন এমপির অনুগতরা। কেননা ফেরদাউসের কথায় সু-স্পষ্ট যে, তিনি শামীম ওসমানের উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। শামীম ওসমান যাকে ছোট ভাই বলে সম্বোধন করেছেন, যাকে নানা ভাবে সুবিধা দিয়ে গেছেন, সেই তিনিই হুট করে কেন এমন মন্তব্য করে বসলেন তা নিয়ে বিস্মিত শামীম অনুসারীদের অনেকেই।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, স্বার্থের টানেই ‘বড় ভাই’য়ের সমালোচনা শুরু করেছেন ‘ছোট ভাই’ ফেরদৌস। কেননা, তিনি এবার তার বড় ভাইয়ের আসনে নির্বাচন করার সংকল্প এঁটেছেন। মূলত, নির্বাচনের জন্যই বড় ভাই শামীম ওসমানের সমালোচনা করেছেন তিনি।
নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে নির্বাচন প্রসঙ্গে স্থানীয় ওই গণমাধ্যমে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ফেরদাউসুর রহমান বলেন, ‘এই আসনে জমিয়তে উলামায়ের ইসলাম বাংলাদেশ জোট থেকে মনোনয়ন পেয়ে আমরা ধানের শীষ মার্কা নিয়ে নির্বাচন করেছিলাম। গতবার যে নির্বাচন হয়েছিল তা দেশবাসী জানে যে কি নির্বাচন হয়েছিল। সে নির্বাচনেও কিন্তু আমরা ৮৬ হাজার ভোট পেয়েছিলাম। অবশ্যই আমরা নির্বাচন করবো। আমরা মনোনয়ন চাইবো।’

মূলত, আগামী জাতীয় নির্বাচনে শামীম ওসমানের নির্বাচনি এলাকা নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে নির্বাচন করার জন্যই এখন তার বিরোধীতা মূলক বক্তব্য রেখে যাচ্ছেন মাওলানা ফেরদাউস। প্রশ্ন তুলেছেন শামীম ওসমানের উন্নয়ন নিয়েও।

এদিকে, গত বছরের ২২ জুলাই নারায়ণঞ্জে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান। সেখানে আলোচনা সভা চলাকালীন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে মাওলানা ফেরদাউসকে দেখতে চায় বলে অভিমত প্রকাশ করেছিল উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা। এসময় মাওলানা ফেরদাউস বলেছিলন, ‘আমরা মহানগর ও জেলা কমিটি গঠন করে জমিয়তের জাগরণ আবার এই নারায়ণগঞ্জে তৈরি করবো ইনশাহ আল্লাহ।’

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ২০ মার্চ আলীরটেকের ডিক্রিরচর ঈদগাহ মাঠে ইসলামি মহাসম্মেলন করে ওলামা পরিষদ। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন এমপি শামীম ওসমান। এসময় তিনি মাওলানা ফেরদাউসুর রহমানকে তার ছোট ভাই বলে সম্বোধন করেছিলেন। এতে স্থানীয় রাজনীতিতে ব্যপক আলোচনা-সমালোচনাও সৃষ্টি হয়েছিল। এবার সেই ছোট ভাই-ই শামীম ওসমানের প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার আভাস দিয়ে যাচ্ছেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ