আজ মঙ্গলবার, ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পুনরায় এমপি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে গাজী

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রূপগঞ্জে বদলে যাচ্ছে ভোটের সমীকরণ। সাংগঠনিক তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না তৃণমূল বিএনপির । দুর্বল হচ্ছে স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহজাহান ভুঁইয়া। নৌকার পক্ষে গর্জে উঠছে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ,অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। গতকাল সারা রূপগঞ্জে নৌকার পক্ষে উঠান বৈঠক করেছে দলটির নেতাকর্মীরা। এসব উঠান বৈঠক গাজী উন্নয়ন তুলে ধরা হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে টানা ৪র্থ বার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি , বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক এমপি। এর আগে এই আসন থেকে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়নে টানা ৩ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন (২০০৮,২০১৪,২০১৯)। ভিআইপি আসন হিসেবে চিহ্নিত নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে নিখুঁতভাবে প্রার্থী বাছাই করতে হয় দলের হাই কমান্ডকে।
গোলাম দস্তগীর গাজী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে নেই কোন অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ। মন্ত্রী হওয়ার পর তিনি রূপগঞ্জ ছেড়ে কোথাও জাননি। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রশাসনের কর্মকর্তারা তার প্রশংসা করছে। গত ১৫ বছর যাবত তিনি রূপগঞ্জে দলমতের উর্ধ্বে কাজ করে যাচ্ছেন। বিশেষ করে তিনি মহিলা লীগকে খুব শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলেছেন। তার রয়েছে বিশাল ভোট ব্যাংক। মাঠে তার বিশাল কর্মী বাহিনী রয়েছে। আওয়ামীলীগ নেতারা একাট্টা হয়ে তার পক্ষে মাঠে নামছে। জনমত জরিপে দেখা গেছে টানা ৪র্থ বার এমপি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। রূপগঞ্জ তার শক্ত প্রতিপক্ষ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর, নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত এবং ভোটগ্রহণ ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, রূপগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি আমাকে টানা ৪র্থবার রূপগঞ্জবাসীর সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। সবাই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে উন্নয়ন দেখে ভোট দেবেন। আমরা সবাই এক। নৌকার স্বার্থে কোন গ্রুপিং চলবে না।
তিনি আরও বলেন, আসন্ন সংসদ নির্বাচন হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ । সবাই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন। রূপগঞ্জের জনগণের সমর্থন নিয়ে আমি নির্বাচনে এসেছি। জনগণ আমার মূলশক্তি। কোন জাল ভোট হবে না। ফ্রি এন্ড ফেয়ার ইলেকশন হবে। বিজয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। আমি ১৫ বছর যাবত রূপগঞ্জের জনগণের সাথে আছি। জনগণের সাথে আমার সম্পর্ক গভীর।
এবার রূপগঞ্জে মোট ভোটার ৩ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬শ ১৬ জন। তার মধ্যে নারী ভোটার অর্ধেকের বেশি। নারায়ণগঞ্জ ১ আসনে নারী ভোটারদের সমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। রূপগঞ্জ উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজীর স্ত্রী হাছিনা গাজী। হাছিনা গাজীর পদচারণা রূপগঞ্জে নারী নেতৃত্বের বিপ্লব ঘটেছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক এমপি নির্বাচিত হওয়ার পরে মুড়াপাড়া কলেজ সরকারী হয়েছে, ভুলতা ফ্লাইওভার হয়েছে, মুড়াপাড়ায় শীতলক্ষ্যা নদীর উপর গাজী সেতু হয়েছে। প্রত্যেকটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তিনি নতুন ভবন দিয়েছেন। নতুন রাস্তা নির্মাণ ও পাকা করেছেন। সর্বশেষ রূপগঞ্জের পূর্বাচলে বাংলাদেশের প্রথম পাতাল মেট্টোরেল এমআরটি লাইন-১ এর নির্মাণ কাজ উদ্বোধন হয়েছে।
রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আজিজ জানান, গোলাম দস্তগীর গাজী আবার জিতবে,আমরা সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হবে। রূপগঞ্জের মানুষ গাজী সাহেবের সাথে আছে। তিনি রূপগঞ্জে অনেক উন্নয়ন করেছেন।

গাজীর বিপক্ষে এবার আবাসন কোম্পানী ও ভূমিদস্যুরা প্রার্থী দিয়েছে। শাহজাহান ভুঁইয়া ও তৈমূর আলম খন্দকার তাদের প্রার্থী বলে গুঞ্জন রয়েছে। শেষ পর্যন্ত তারা মাঠে থাকবে কিনা সন্দেহ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ