আজ মঙ্গলবার, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

‘নৌকার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর সুযোগ দিয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেছেন, তারা আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে। আমাদের নেত্রীকে বন্দী রেখে চিকিৎসা করতে দিচ্ছে না। মনে রাখতে হবে এই সরকার আমাদেরকে কিভাবে নির্যাতন করেছে। আমি মনে করি আল্লাহ আমাদের এই নৌকার বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর একটি সুযোগ দিয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা, মহানগর এবং সদরের ৮টি ওয়ার্ড বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেলে মিশনপাড়ায় অবস্থিত তার নিজ বাস ভবনে আয়োজিত এক মত বিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন , আজকে যারা বলেন আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর সুখ -দুঃখের সাথী ,তারা তো জনপ্রতিনিধি ছিলো তারা তো বিভিন্ন নির্বাচনে আমাদের কাছ থেকে ভোট নিয়েছেন। কিন্তু কোনোদিন কি বলেছেন এই নারায়ণগঞ্জে কোনো নিরীহ মানুষকে অপরাধী করবেন না। তাই আমাদেরকে কিন্তু এই নৌকার বিরুদ্ধে রায় দিতে হবে। ২ নম্বর গেটে আমাদের বিএনপির একটা অফিস ছিলো আজকে সেই অফিস যদি থাকতো তাহলে এখানে (সভাস্থল) আপনাদের বসতে হতো না , সেই কার্যালয়টা আমাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বুলড্রেজার দিয়ে গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সেখানে কোন ধরণের হাসপাতাল হয় নাই,কমিউনিটি সেন্টার হয় নাই বা জনগণের কল্যাণে কোনো কিছু হয় নাই। একটা বাণিজ্যিক ভবন দেওয়া হয়েছে। সেখানে আমাদেরকে অফিস দেওয়া হয় নাই। আমাদের অফিস কিন্তু সে দেয় নাই। সে কাজ আইভী করেছে। আপনারা বিএনপি জামায়াত ভোট দিয়ে তাকে নির্বাচিত করেছিলেন। সে কিন্তু সে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করা দূরে থাক আমাদের অফিসকে বুলড্রেজার দিয়ে ভেঙ্গে সে আমাদের উপর অত্যাচার করেছে। রাজনৈতিকভাবে আমরা নারায়ণগঞ্জে কোনো মিটিং মিছিল করতে না পারি তার জন্য সে সেটা করছে। সে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর অন্যায় -অত্যাচার করেছে । তার জন্যে আমাদেরকে আজকে এড.তৈমূর আলম খন্দকারের হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। তিনি মেয়র হবেন। তিনি অবশ্যই আমাদের সেই অফিস ফিরে দেবেন। আবার ২ নং গেটে আমাদের বিএনপির পতাকা উড়বে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এ সময় উপস্থিতি ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক জাহিদ হাসান রোজেল, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নুরুল হক চৌধুরী দিপু, সাবেক দপ্তর সম্পাদক আক্তার হোসেন খোকন শাহ, মহানগর শ্রমিক দলের যুগ্ম সম্পাদক মো. জামাল হোসেনসহ জেলা, মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ড বিএনপির নেতাকর্মী।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ