আজ রবিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

 ‘নেত্রীর বিরুদ্ধে কথা মেনে নেওয়া যায় না’

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, ‘ঢাকায় সমাবেশ না করে নারায়ণগঞ্জ করেন আর একই সময়ে আমাদের ছাত্রলীগ সমাবেশ করুক। দেখেন কোনটাতে বেশী লোক হয়। আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ তো অনেক পরে আগে ছাত্রলীগের সমান লোক দেখান। অল্প লোকজন নিয়ে আমাদের নেত্রীর বিরুদ্ধে উল্টাপাল্টা কথা বলবেন এগুলো আর মেনে নেওয়া যায় না।’

বুধবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় নারায়ণগঞ্জ রাইফেলস ক্লাবে শ্রমিক লীগের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

বক্তব্যের শুরুতে শামীম ওসমান নিজের মোবাইলে থাকা চট্টগ্রামে বিএনপির সমাবেশের একটি ভিডিও প্রদর্শন করেন। এবং সেখানে কত লোক হয়েছে সেটা স্থানীয় একজন গণমাধ্যমকর্মীর কাছ থেকে জানতে চান।

তিনি বলেন, ‘সাংবাদিক সাহেব বলছেন ৫ থেকে ৭ হাজার আর আমি বলি ১০ হাজার লোক। চট্রগ্রাম বিভাগের ১৩টি জেলা হতে ১ হাজার করে লোক আসলেও ১৩ হাজার। এই পাঁচ হাজার দশ হাজার লোকের মিছিল করে বলেন মহাসমাবেশ। এটাতো আমাদের ছাত্রলীগই করতে পারে। আমাদের মুন্না (শ্রমিক লীগ নেতা ও নাসিক কাউন্সিলর) তো পনেরো হাজার লোকের মিছিল আনে। এটা হল বড় হাক ডাক। আমিতো ভেবেছিলাম কি জানি হয়ে যাবে আজ বাংলাদেশে। আজ চট্টগ্রামে বিএনপির মহাসমাবেশ ছিল। এত হাকডাক বিভাগীয় মহাসমাবেশ। চট্টগ্রাম তো অনেক বড় বিভাগ। এই হল তাদের অবস্থা। যারা বলেন জনগণকে দিয়ে সরকারের পরিবর্তন ঘটাবেন তারা আজ বুঝবেন সাধারণ মানুষ আপনাদের পক্ষে নেই।

শামীম ওসমান বলেন, ওরা বাংলাদেশে হায়েনার রূপ নিয়েছে। লাঠি রড নিয়ে এমন সব ভাষা ব্যবহার করা হচ্ছে যেগুলো রাজনীতির ভাষা হতে পারে না। বৃটেনের মত দেশে বিদ্যুৎ খাতে দাম বেড়ে গেছে। সেখানে আমরা এখনও ভাল আছি। জাতির পিতার কন্যা দেশ বাঁচাতে কাজ করছেন। তিনি বলেছেন বিদ্যুৎ অপচয় করবেন না। আল্লাহ শেখ হাসিনার ওপর রহমতের চাঁদর বিছিয়ে রেখেছে। আইএমএফসহ সকলে বলেছে বাংলাদেশ চায়না ও ভারতের চেয়ে ভাল থাকবে।

শামীম ওসমান বলেন, আওয়ামী লীগের সবাই ভাল আমি বলি না, সব জায়গায় ভাল খারাপ আছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ