১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, রাত ৮:০৫

‘নির্বাচন এখন ব্যবসায় পরিণত’

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপির মেয়র এবং কাউন্সিলর প্রার্থীরা বসে নেই। দলটির তৃণমূলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনে যাওয়ার পক্ষে। সিটি নির্বাচনে বিএনপি আসবে কি-আসবে না এসব বিষয়ে রবিবার ( ৫ ডিসেম্বর) বিকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক এড. তৈমূর আলম খন্দকার ও সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদের সাথে দৈনিক সংবাদচর্চার এই প্রতিবেদকের কথা হয়।

জেলা বিএনপির আহবায়ক এড.তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আমাদের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা নির্বাচন করতে আগ্রহী। আমাদের দলীয় হাইকমান্ডকে বিষয়টি আমি জানিয়েছি । কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে আমার দফায় দফায় মিটিং হচ্ছে। সিটি করপোরেশনের ২৭ টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ,সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী, মেয়র প্রার্থীরা আমার সাথে যোগাযোগ রাখছে। আগামী ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে দল চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে। নারায়ণগঞ্জের সিটি নির্বাচন নিয়ে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে অনেক কিছু বোঝার আছে।

আপনি মেয়র প্রার্থী হবেন কিনা এমন প্রশ্নে তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, দল চাইলে অবশ্যই প্রার্থী হবো। গত কয়েকদিন যাবত নেতাকর্মীরা আমার বাড়িতে আসছে, আমাকে তারা মেয়র প্রার্থী হওয়ার কথা বলছে। বিষয়টা আমি হাইকমান্ডকে জানিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা অনেক চাপে আছি। আমাদের নেত্রীর বিদেশে চিকিৎসার জন্য রাজপথে আমাদেরকে আন্দোলন করতে হচ্ছে। সবাই আমাদের নেত্রীর জন্য দোয়া করবেন।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেন, এ গুলো কোনো নির্বাচন নয়, মানুষের ভোটের অধিকার নেই। এই সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের অধীনে বিএনপি নির্বাচনে যাবে না। তাহলে কি আপনারা আইভীকে ছাড় দিয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেন, আমরা সবাইকে ছাড় দিয়েছি। নৌকাকেও ছাড় দিয়েছি।

মামুন মাহমুদ আরও বলেন, মেয়র পদে কেউ যদি স্বতন্ত্র হয়ে নির্বাচন করে সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। নির্বাচন এখন ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন বাণিজ্য হয়। ভোটের মাঠে কালো টাকা ছড়ায়। কাউন্সিলর পদে বাণিজ্য হয়। প্রশাসন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করে না। আমরা জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আন্দোলন করে যাচ্ছি। জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত হলে আমরা নির্বাচনে যাবো।

উল্লেখ্য আগামী ১৬ জানুয়ারি ইভিএম পদ্ধতিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ভোট গ্রহণ। ইতোমধ্যে বিএনপির দুই নেতা মেয়র পদে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তারা হলেন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান , সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল—।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ