১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, সকাল ৮:০৯

‘নিজেরা কাপড় নিয়ে যাইতে পারবেন না’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ভোলাব ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আবুল হোসেন খাঁন বলেছেন, আমি দেখতে চাই, আমার ভালোবাসার চাদরের ভিতরে থেকে আপনারা হিংস্রতার থাবা দিয়ে আমার এই কেন্দ্র দখল করতে আসবেন কিনা। আর যদি আসেন আমি কিন্তু এই বছর প্রার্থী না। আমার চোখে কিন্তু স্টিলের কালো চশমা পড়া থাকবে। আপনারা বুঝতে পারবেন ,ভদ্রতা শুধু ভদ্র লোকের জন্য ,ভদ্রতা কোনো ভদ্রতা কোনো দুষ্ট লোকের জন্য নয়। বিএনপির সাথে আমার ভালো সম্পর্ক । কারণ আমার কিছু আত্মীয় স্বজন বিএনপি আছে। সেই কারণে আমি আপনাদেরকে ইজ্জত করছি, সারাজীবন করবো। জামাইরে যদি বেইজ্জতি করার চেষ্টা করেন ,নিজেরা কিন্তু কাপড় নিয়ে যাইতে পারবেন না। আমার দুর্গ ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড । আমি যাবার বেলায় বেইমানের খাতায় নাম লেখে আওয়ামী লীগ থেকে যেতে চাই না। আমি আমার ছোট ভাই তায়েবুরকে চেয়ারম্যান করে প্রমাণ করে দিতে চাই ভোলাবতে সিংহ পুরুষ আবুল হোসেন খাঁন। আপনারা আমার জন্য কি করেছিলেন আর আমি তায়েবুরকে চেয়ারম্যান করে কি করে গেলেম। ষড়যন্ত্র আমার বেলায় আপনারা কিছু করেছিলেন। তাদেরকে আমি চিনি। আজকে ষড়যন্ত্র করছেন, আমি আপনাদের তালিকা করছি। আগামী দিনে রূপগঞ্জে আমাদেরকে নেতৃত্ব দেবেন গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা । আমি উনার কাছে ষড়যন্ত্র কারীদের নাম বলতে পারছি। আপনারা মনে রাখতে ভোলাবর মাটিতে আওয়ামী সংগঠনের কোনো জায়গায় আপনাদের স্থান হবে না। যারা আমাকে সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে আপনারা সভাপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তাদেরকে বলছি বেইমানের অর্থ বুঝিয়ে দেবো।

গতকাল ৭ নভেম্বর তিনি ভোলাবতে নৌকার পক্ষে গণসংযোগ শেষে এসব কথা বলেন।
এসময় বিসিবির পরিচালক গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা, ভোলাব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন খাঁন, সাধারণ সম্পাদক হাসান আশকারী, ভোলাব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ প্রার্থী এড. তায়েবুর রহমান, কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জি. শেখ সাইফুল ইসলাম, এমায়েত হোসেন, আলহাজ্ব তাবিবুল কাদির তমাল, আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হারেজ, মতিউর রহমান আকন্দ, রূপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহীন , দৈনিক সংবাদচর্চার সম্পাদক মো: মুন্না খাঁন, যুবলীগ নেতা তানভীর হাইসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ