আজ রবিবার, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

না.গঞ্জে রোগীদের সাথে প্রতারণা:১৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যাওয়া রোগীদের জিম্মি করে প্রতারণা করা দালাল চক্রের ১৯ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রট কাউসার আলম এর আদালত এ আদেশ দিয়েছেন।আদালত পুলিশের পরির্দশক আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দালালদের দৌরাত্ম্যে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালের রোগীরা জিম্মি হয়ে পড়েছে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর বিষয়টি আদালতের নজরে আসে। আদালত ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেন গোয়েন্দা পুলিশকে। তদন্তে ভুক্তভোগী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষীদের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন পুলিশ। আদালত প্রতিবেদনটি আমলে নিয়ে ১৯ আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রাপ্ত আসামী হলেন, ইবনে আবু সাইদ রনি, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, সঞ্জয় চন্দ্র দাস, মেঃ আকাশ ইসলাম, মোঃ আমির হোসেন, মোঃ জাহিদ, ফরহাদুজ্জামান, মোঃ আরাফাত হোসেন মোল্লা, মোঃ অপু, মোঃ নাজমুল, মোঃ আকাশ, মোঃ রাব্বি, বাপ্পী মন্ডল, মোঃ সবুজ, মোঃ ইজাজুল, মারুফ, হিরুচি আক্তার, হাজেরা বেগম ও হিরা।

আদালতদের স্টেনোগ্রাফার কাম কম্পিউটার অপারেটর (আদালত সহকারি) সাইফুল মীর জানান, ২০২১ সালের ২০ সেপেম্বর স্থানীয় একটি দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়, নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে দালাল চক্রের কাছে জিম্মি রোগীরা। এতে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে রোগীদের। দালাল চক্রের সদস্যরা হাসপাতালে আসা রোগীদের সাথে প্রতারণার মাধ্যমে অপরাধ সংঘঠিত করে আসছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন আদালত। সেই প্রেক্ষিতে ওই ঘটনায় একটি মিস মামলার নথি খোলার পর পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো। সেই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার পর আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ