৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, সকাল ৬:০৪

দ্রুত ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জে ক্যান্সার হাসপাতালটি দ্রুত নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন প্রায় অর্ধশত ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শনিবার বিকালে শহরের খানপুর গোলচত্বরের সামনে ‘নারায়ণগঞ্জ জেলার সর্বস্তরের জনগণ’ ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক সংগঠন ছাড়াও কর্মসূচিতে অংশ নেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার শত শত নারী-পুরুষ। এ সময় গার্মেন্টস শ্রমিক নেতা মাহাবুবুর রহমান ইসমাইলকে গ্রেফতারেরও দাবি জানান বক্তারা।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গল কর্তৃক নির্মিতব্য ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স অ্যান্ড ক্যান্সার রিসার্চ (কিমস কেয়ার) হাসপাতালটির ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন।

মানববন্ধনে সাবেক এমপি হোসনে আরা বাবলী বলেন, যখনই নারায়ণগঞ্জে উন্নয়ন শুরু হয়,তখনই কোনো না কোনো কুচক্রী মহল সেই উন্নয়নে বাধা দেয়। প্রায় ১ কোটি জনবসতির এ নারায়ণগঞ্জে একটি ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণ সর্বসাধারণের প্রাণের দাবিতে পরিণত হয়েছে। এ হাসপাতালটি জেলার স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে পাল্টে দেবে। অথচ কুমুদিনীর শ্রমিকদের ভুল বুঝিয়ে তাদের মাঠে নামিয়ে এক শ্রমিক নেতা নিজের স্বার্থ হাসিল করতে চাচ্ছেন। আমরা চাই এ হাসপাতাল দ্রুত তৈরি হোক।

জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক সানাউল্লাহ সানু বলেন, কুমুদিনীর পাট কোম্পানির শ্রমিকদের ব্যানারে পুনর্বাসনের দাবি তুলে ২৯ মে কাফনের কাপড় পরে প্রতিবাদ মিছিল করা হয়েছে। এর নেপথ্যে সেই শ্রমিক নেতা ইসমাইল, যিনি গার্মেন্ট সেক্টর ধ্বংস করতে যুগ যুগ ধরে আন্দোলনের নামে অসন্তোষ সৃষ্টি করে আসছেন। আমরা এই হাসপাতাল নির্মাণের অনুমতি দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই এবং উদ্যোক্তাদের স্বাগত জানাই। পাশাপাশি ওই শ্রমিক নেতা নামধারী ইসমাইলকে গ্রেফতার দাবি করি।

সভাপতির বক্তব্যে চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল বলেন, যারা শ্রমিক তাদের শ্রমআইন অনুযায়ী পাওনা পরিশোধ করেই জায়গা খালি করানো হবে। কিন্তু যেসব অবৈধ দখলদার কথিত শ্রমিক নেতাদের উস্কানিতে রাস্তায় নেমেছেন, তাদের অচিরেই উচ্ছেদ করে কুমুদিনী হাসপাতাল বাস্তবায়ন করার অনুরোধ জানাচ্ছি। এ হাসপাতালটি নারায়ণগঞ্জবাসীর খুবই প্রয়োজন। নারায়ণগঞ্জবাসীর স্বার্থ অক্ষুণ্ণ রাখতে আজকে রাস্তায় নেমেছি। প্রয়োজনে আগামীতে কঠোর আন্দোলনে নামব। তবুও কোনো চক্রান্ত সফল হতে দেওয়া হবে না।

নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজলের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- সংরক্ষিত আসনের সাবেক এমপি হোসনে আরা বাবলী, বাংলাদেশ ইয়ার্ন মার্চেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লিটন সাহা, বিকেএমইএর সহ-সভাপতি মোরশেদ সারোয়ার সোহেল, জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক ও বন্দর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, বাংলাদেশ হোসিয়ারি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, ১২নং কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফি প্রধান, ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল আহম্মেদ প্রমুখ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ