আজ রবিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

তরুণ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে প্রচার

নবকুমার:

বিরোধী দল নীরব। সুসংগঠিত রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ। নতুন ভোটারদের দলে আকৃষ্ট করার কথা জানিয়েছেন রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা। গতকাল রূপগঞ্জ ইউনিয়নে ভোটারদের সাথে দেখা করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক,এমপি। এসময় মন্ত্রী এলাকাবাসীর সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং তাদের খোঁজ খবর নেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, রূপগঞ্জ একটি শক্তিশালী ইউনিয়ন। তারা কাজ,কর্মে অনেক ফাস্ট। এসময় রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ ছালাউদ্দিন ভুঁইয়া, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হারেজ, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মশিউর রহমান তারেক, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মতিউর আকন্দ, ইউপি সদস্য রিটন প্রধান, জিন্নাত জাহান জিসানসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
জাতীয় নির্বাচন ঘিরে তৃণমূল পর্যায়ের সাংগঠনিক তৎপরতা বাড়াতে মাঠে গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক.এমপি। তিনি জনসম্পৃক্ততা বাড়াচ্ছেন। নেতাকর্মীরাও ঐক্যবদ্ধ।
জাতীয় নির্বাচনের এক বছরের বেশি সময় বাকি থাকলেও এখন থেকেই পুরোদমে প্রস্তুতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। এজন্য সব কর্মপরিকল্পনা সাজাচ্ছে উপজেলা আওয়ামীলীগ। তৈরি করা হয়েছে বিশাল রোডম্যাপ। সেই আলোকে চলছে নির্বাচনি প্রস্তুতি পর্ব।
গত ২২ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের সাধারণ সভায় বক্তারা বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনিবাহী কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, তোফায়েল আহমেদ আলমাছ, ব্যারিস্টার আরিফুল হক, আলহাজ¦ ছালাউদ্দিন ভুঁইয়া, রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনের আগে বিএনপি নৈরাজ্য করছে। আগামী নির্বাচন অনেক কঠিন হবে। আমরা মাঠে আছি। গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীককে আমরা পুনরায় এমপি নির্বাচিত করবো। রূপগঞ্জের মাটিতে বিএনপিকে আর নৈরাজ্য করতে দেওয়া হবে না।
রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ শাহজাহান ভুঁইয়া বলেন, সবাই মিলে কাজ করলে আমাদের নতুন কমিটি অনেক শক্তিশালী।
রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গাজী গোলাম মর্তুজা পাপ্পা বলেন, আমি আপনাদের একজন সহযোদ্ধা হিসাবে দলের জন্য কাজ করে যাবো। নেত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়নে কাজ করবো। আওয়ামী লীগের ১৪ বছরের শাসন আমলে দেশে প্রায় দেড় কোটি নতুন ভোটার হয়েছে। নতুন ভোটাররা বিএনপির দুঃশাসন ভুলে গেছে। আগামী নির্বাচনে সেই দেড় কোটি নতুন ভোটারকে আমাদের দল আওয়ামী লীগে আকৃষ্ট করুন। তরুণ ভোটারদের দলে আকৃষ্ট করতে আমরা সবাই প্রচার করে যাবো। বিএনপির নৈরাজ্যের আমরা প্রতিবাদ জানাই। নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে আমরা মাঠে আছি।
এছাড়া বিভিন্ন জরিপ এবং তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে কাজ এগিয়ে নিচ্ছেন দলের সভানেত্রী।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ