আজ বুধবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ডেপুটি স্পীকারের মৃত্যুতে মন্ত্রী গাজীর শোক

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার, গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া (৭৬) আর নেই। মরণব্যাধি ক্যান্সারের কাছে তিনি হার মেনেছেন। নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় শুক্রবার ২২ জুলাই বিকাল সাড়ে ৪টায় (বাংলাদেশ সময় রাত আড়াইটা) মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ -১ ( রূপগঞ্জ ) আসনের সংসদ সদস্য , বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক । এক শোকবার্তায় বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৪৬ সালের ১৫ এপ্রিল গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার গটিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার ফয়জার রহমান এবং মাতার নাম হামিদুন নেছা। ১৯৬১ সালে তিনি গাইবান্ধা কলেজে ভর্তি হন। তিনি বিএ এবং এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেছেন।
ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৮৬ সালের তৃতীয়, ১৯৮৮ সালের চতুর্থ, ১৯৯১ সালের পঞ্চম ও ১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এর পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পরাজিত হন।

২০০৮ সালের নবম, ২০১৪ সালের দশম ও ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

১৯৯০ সালে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি। দশম সংসদ থেকে তিনি ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রীর নাম আনোয়ারা রাব্বী, যিনি ২০২০ সালের ২৬ মে সকাল ১১টা ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ