আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

টেকসই হচ্ছে বস্ত্রখাত: মন্ত্রী গাজী

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক বলেছেন, বিভিন্ন দেশে ও বিদেশে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ ও বিভিন্ন অংশীজনদের পারস্পারিক সহযোগিতার মাধ্যমে আরো টেকসই হচ্ছে দেশের বস্ত্রখাত।

বুধবার ৩১ আগস্ট দুপুরে রাজধানী ঢাকায় বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে CEMS Global Bangladesh কর্তৃক আয়োজিত 21st Textech Bangladesh International Expo এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ- এর প্রেসিডেন্ট ফারুখ হাসান, বিকেএমইএ- এর প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ হাতিমসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশের বস্ত্রখাতকে যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা সক্ষম তৈরি করতে নানামুখী নীতিমালা-পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় ।

তিনি বলেন, বস্ত্রখাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘোষিত বিশেষ প্রণোদনার কারণে এ খাত জাতীয় রপ্তানির ধারাকে করোনা ভাইরাসের ক্ষতিকর প্রভাবমুক্ত রাখতে সক্ষম হয়েছে। বস্ত্রশিল্পের ধারাবাহিক উন্নয়ন ও আধুনিকায়নের গতি বেগবান করা এবং অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নানামুখী পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করেছে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার পোষাকখাতে ব্যবসাবান্ধব নীতিমালা প্রণয়ন করে বেসরকারী খাতকে ব্যবসা পরিচালনায় উৎসাহিত করছে। এখাতের ব্যবসাকে সহজতর করার জন্য নীতি সহায়তা প্রদান, অবকাঠামো সুবিধা বৃদ্ধিসহ সকল ক্ষেত্রে দৃঢ় সহায়তার ভূমিকা পালন করছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি, পোর্টের সুবিধা বাড়ানো, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ নিরবিচ্ছিন্ন করা, চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দরের কার্গো হ্যান্ডলিং সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। এছাড়াও দ্রুত ও পরিকল্পিত শিল্পায়ন ও উন্নয়নের জন্য অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, দেশের সাশ্রয়ী বিশাল শ্রমশক্তি, উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর বিদ্যুৎ-জ্বালানি এবং দক্ষ মানব সম্পদগুলোর সমন্বয় বস্ত্র ও পোশাকগুলো আরো দক্ষভাবে গড়ে উঠতে পারবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ