আজ বুধবার, ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

‘টাকার কাছে হেরে গেছি, ভাই হত্যা বিচার পাইনি’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক পরিচালক, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সহ-সভাপতি শহীদ সাব্বির আলম খন্দকারের ১৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত হয়েছে। শুক্রবার ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে শহীদ সাব্বিরের খুনিদের গ্রেফতার ও বিচার এবং নারায়ণগঞ্জকে সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত করার দাবিতে বিশাল শোক র‌্যালী বের হয়।

র‌্যালীর আগে এক সমাবেশে অধ্যাপক খন্দকার মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দাকার, বিএনপি নেতা জামাল উদ্দিন কালু, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এড. আজাদ বিশ^াস, আইনজীবী নেতা এড. হামিদ ভাসানী, এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, ওলামা দলের সভাপতি শামসুর রহমান খান বেনু, মহানগর বিএনপির নেতা আব্দুস সবুর খান সেন্টু, বন্দর বিএনপি নেতা হিরন, দিপু চৌধুরী, আনোয়ার মাহমুদ বকুল, জয়নাল আবেদীন, আবুল কালাম আজাদ, মনোয়ার হোসেন শোখন, মামুন যুবদল নেতা মাজহারুল ইসলাম জোসেপ, আমির হোসেন, জুয়েল প্রধান, জুুয়েল রানা, রানা মজিব, সরকার মজিব, শওকত খন্দকার, মহানগর শ্রমিক দলের সাধারন সম্পাদক ফারুক হোসেন, বিল্লাল, জামাল।

এড. তৈমুর আলম খন্দাকার বলেন, ‘আমার ভাইকে কোন ব্যক্তিগত কারণে হত্যা করা হয়নি। শুধু মাত্র সমাজসেবায় মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে কথা বলার কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে। আমার ভাই আইনশৃঙ্খলার মিটিংয়ে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজীদের নাম উল্লেখ্য করে এবং তারা কে কত টাকা পায় এসব বলার কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে। আজও আমার ভাইয়ের হত্যা বিচার পাইনি। শুধুমাত্র টাকার কাছে হেরে গেছি। হত্যাকারীরা টাকা দিয়ে ত্রুটিপূর্ণ চার্জশীট করিয়েছে। তাই আজও বিচার পাইনি। খুনিরা আবারো ঢাকায় ফিরে আমাদের খুন করার হুমকি দিচ্ছে।

বক্তারা বলেন, আজ যেই মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্বে সরকার সহ দেশবাসী কথা বলছে, সেই মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্বে শহীদ শাব্বির আলম খন্দকার নব্বইয়ের দশক থেকেই সোচ্চার ছিলেন। তিনি মাঠ পর্যায়ে মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্বে প্রতিরোধ গড়ে তোলায় মাদক ও সন্ত্রাসের গডফাদারদের চক্ষুসূলে পরিনত হন। সমাজের ও দেশের চিন্তা করেই একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হয়েও অকাতরে জীবন বিলিয়ে দিয়েও তার হত্যার বিচার পাইনি তার পরিবার। বক্তারা সমাবেশ থেকে হত্যাকারীদের ফাঁসি ও নারায়ণগঞ্জকে সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত করার এবং দাবি জানান ১৮ই ফ্রেবুয়ারীকে সন্ত্রাস ও মাদক বিরোধী দিবস ঘোষনার দাবী করে বক্তারা।

সাব্বির আলম খন্দাকার গার্মেন্ট মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ) এর সাবেক সহ সভাপতি ও ব্যবসায়ী নেতা ছিলেন। মৃত্যু তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাসেরও সহ-সভাপতি ছিলেন।

শোক র‌্যালী নিয়ে মাসদাইড় সিটি কবরাস্তানে গিয়ে শহীদের কবর জিয়ারত, দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ