আজ শনিবার, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চনপাড়ায় আজ ভোট, কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

টি.আই.আরিফ:
কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চনপাড়া উপ- নির্বাচন ( ২০২৩) সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সমাপ্ত করার লক্ষ্যে নির্বাচনে পুলিশের মূল দায়িত্ব পালন করবেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) তরিকুল ইসলাম। প্রত্যেকটা কেন্দ্রে ১০ জন করে পুলিশ সদস্য থাকবে।

রবিবার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো: মোস্তফা রাসেল
এ তথ্য সংবাদচর্চাকে নিশ্চিত করেছেন।
রূপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে মেম্বার পদে চনপাড়া উপ-নির্বাচনে ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। তাদের মধ্যে রয়েছে সিনিয়র সহকারী কমিশনার (রাজস্ব শাখা) হাসান মো: হাফিজুর রহমান, ফারাশিদ বিন এনাম, মোহাম্মদ রবিন মিয়া, ),কে. এম. ইশমাম , মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান নূর, ইব্রাহিম হোসেন,কুদর এ খোদা, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফায়সাল হক, সহকারী কশিনার আতিকুল

স্ট্রাইকিং ফোর্স, র‌্যাব, ২ প্লাটুন বিজিবি , সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবে।

চনপাড়া উপ-নির্বাচনের প্রচারণা শেষ। শেষ মূহূর্তে প্রার্থীরা ছিলো ব্যস্ত। নাশকতা এড়াতে তৎপর প্রশাসন। গতকাল থেকে চনপাড়ায় র‌্যাব,পুলিশ সদস্যদের টহল দিতেছে। চলছে শেষ মূহূর্তের বিশ্লেষন। প্রয়াত বজলুর অনুসারী ও প্রতিপক্ষরা এবার প্রার্থী । কে জিতবে তা বলা যাচ্ছে না। কায়েতপাড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের চনপাড়া উপ-নির্বাচনে ১৬ প্রার্থীর মনোনয়নই বৈধ ঘোষণা করা হয় এবং তাদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মনোনয়ন বৈধ ঘোষিত প্রার্থীরা হলেন, সমসের আলী খান, জয়নাল আবেদীন, মোঃ শাহাবুদ্দিন, রবিন, ইব্রাহিম মোল্লা, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মোঃ খলিলুর রহমান, মোঃ নূর আলম, জহিরুল ইসলাম, আবিদ হাসান চাঁন মিয়া, মোঃ ইব্রাহিম, শেখ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃ নুরুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, মোঃ আল আমিন ও মোঃ বাবুল।
আজ ১২ জুন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ইভিএম এর মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
প্রসঙ্গত মুন লড়ছেন টিউবয়েল প্রতীকে, শমসের লড়ছেন হাতি প্রতীকে, জয়নাল আবেদিন লাটিম প্রতীকে এবং শফিকুল লড়ছেন তালা প্রতীকে। প্রার্থীদের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়ায়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। হাতি ও লাটিম মার্কার আলোচনা বেশি হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক এক প্রার্থী টাকা ছড়ানোর অভিযোগ তুলছে। তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন দাবি করেছেন। চনপাড়ায় এবার চব্বিশ হাজারের অধিক ভোট। থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে। সবার নজর এখন চনপাড়ার দিকে। প্রার্থীরা গাজী পরিবারের অনুগত।
নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার রাসেল সংবাদচর্চাকে বলেন, সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। ভোট সুষ্টু করার জন্য যা যা দরকার আমরা তাই করছি। প্রত্যেকটা কেন্দ্রে ১০ জন করে পুলিশ থাকবে।
রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল হক বলেন, চনপাড়া ভোট সুষ্ঠু হবে। ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট টহল দেবে। বিজেবি,র‌্যাব ,পুলিশ মাঠে আছে। কেউ বিশৃঙ্খলা করলে ছাড় পাবে না।
উল্লেখ্য, গত ৩১ মার্চ কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ বজলুর রহমান মৃত্যুর বরণ করার কারনে এ ওয়ার্ডটির সদস্য পদ শূন্য হয়।
এবার উপ-নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী মুন, শফিকুল, জয়নাল আবেদীন, মো: শমসের আলী। তাদের সমর্থকরা তৎপর। শেষ পর্যন্ত কি হয় তা বলা যাচ্ছে না। সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা সৎ লোক জিতবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ