আজ সোমবার, ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গাজীর সুনাম নষ্ট করতে তৈমূরের মিথ্যাচার

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জ -১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী , বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীকের সুনাম নষ্ট করার লক্ষ্যে মিথ্যাচার করছেন বিএনপি থেকে বহিস্কৃত তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমূর আলম খন্দকার।
সোমবার সকালে রূপসি খন্দকার বাড়িতে সাংবাদিকদের কাছে টাকা দেয়ার একটি ভিডিও প্রকাশ করে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলেন তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার। প্রকৃতপক্ষ ভিডিওটি গত ৩০ সেপ্টেম্বরের ।
রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ,বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজে টাকা বিতরণের যে ভিডিও তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার প্রকাশ করেছেন সেটি পুরনো ভিডিও বলে দাবি করেছেন টাকা বিতরণকারী ব্যক্তি নিজেই।
সোমবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে টাকা বিতরণকারী নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য আনসার আলী এক ভিডিও বার্তায় সাংবাদিকদের জানান, ভিডিওটি গত ৩০ সেপ্টেম্বরের ঘটনার। এর আগে ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন ছিল। এ উপলক্ষে পরদিন ৩০ সেপ্টেম্বর বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীর রূপগঞ্জের বাড়িতে এলাকার সর্বস্তরের মানুষকে খাওয়ানো হয়।
তিনি বলেন, ‘মন্ত্রীর পক্ষ থেকে আগতদের প্রত্যেককে যাতায়াত ভাড়া বাবদ ১০০ টাকা করে দেয়া হয়। এর পরদিন ৩০ সেপ্টেম্বর এই ভিডিও ফেসবুকে অনেকেই আপলোড করেন। যার প্রমাণ রয়েছে।’
আনসার আলী দাবি করেন, ‘তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমুর আলম খন্দকার দুই মাস আগের ভিডিও যাচাই না করে এখন নির্বাচনকালীন সময় প্রকাশ করে মিথ্যাচার করেছেন। এতে নির্বাচন কমিশনকে প্রশ্নবিদ্ধসহ মন্ত্রীর সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে।’ এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে তৈমুর আলম খন্দকারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবি জানান তিনি।
সেই ভিডিওটিসহ তৈমুর আলম খন্দকারের বক্তব্য বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রচার হয়। পরে আনছার আলীর বক্তব্যও বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার হয়।
এছাড়া রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা জানান, তৈমূর একটি অপশক্তির পক্ষে কাজ করছে। আমরা তার মিথ্যাচারের নিন্দা জানাই।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ