১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার, দুপুর ২:২৯

খোরশেদের স্ত্রীর জিডি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নিজ ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা চেয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন নাসিক কাউন্সিলর ও যুবদল নেতা মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনা। তিনি বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় এই জিডি করেন।

সাধারণ ডায়েরিতে তিনি উল্লেখ্য করেন গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটা হতে পৌনে চারটা পর্যন্ত বাদীর মাসদাইরের ৪২ নং শেরেবাংলা সড়কস্থ বাসায় কে বা কারা রাতের অন্ধকারে প্রবেশ করে দ্বিতীয় তলার কলিং বেল বাজাতে থাকে। এসময় বাসার ভেতর থেকে বাদী ও তার ছেলে-মেয়েরা পরিচয় জানতে চাইলে কোন উত্তর পায়নি। ফলে তিনিসহ তার পরিবারের অপর সদস্যরা তাদের বাসার ৩য় তলা হতে ২য় তলায় চলে আসে। সেখানেও তৃতীয় তলার দরজায় সজোরে আঘাত করা হয়। তারা তখন ডাক চিৎকার করে পরিচয় জানতে চাইলেও কোনো উত্তর মেলেনি। এমন পরিস্থিতিতে বাদীর কন্যা নাবিলা জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে ঘটনার বিস্তারিত জানালে ফতুল্লা থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায় এবং পুরো বাড়ি তল্লাশি করে, কিন্তু কাউকে পায়নি পুলিশ।

আফরোজা খন্দকার লুনা আরও উল্লেখ্য করেন, গত ৩-৪ দিন যাবৎ তাদের বাসার আশপাশে একটি ড্রোন উড়তে দেখা যাচ্ছে। তিনি ধারণা করছেন, অজ্ঞাত কোন ঘাতক বাড়ির সীমানা প্রাচীর ডিঙিয়ে বাসার অভ্যন্তরে প্রবেশ করে এ ঘটনা ঘটাচ্ছেন। এছাড়া তার স্বামী কাউন্সিলর খোরশেদের ওয়ার্ড সচিব আলী সাবাব টিপুর ব্যবহৃত মোবাইলে তাকে এবং তার সন্তানদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছেন অজ্ঞানামা এক ব্যক্তি। ফলে তিনি আশঙ্কা করছেন ফোনে হুমকি দাতা চক্রের কোন ব্যক্তি রাতের আধারে বাদী এবং বাদীর সন্তানদের ক্ষতি সাধন করতে পারে।

মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশদের স্ত্রীর দায়ের করা সাধারণ ডায়েরির বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান, আফরোজা খন্দকার লুনা সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তা আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদােলতের অনুমুতিক্রমে সাধারণ ডায়েরির তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ